প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষা ১১ মে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৩৫ পিএম, ২৩ এপ্রিল ২০১৮ | আপডেট: ০৯:৫০ পিএম, ২৭ এপ্রিল ২০১৮

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রাজস্ব খাতভুক্ত দ্বিতীয় ধাপে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা আগামী ৪ মে আয়োজনের কথা থাকলেও টানা কয়েকদিন সরকারি ছুটি হওয়ায় তা পরিবর্তন করা হয়েছে। এ পরীক্ষা আগামী ১১ মে সকাল ১০টায় আয়োজনের প্রস্তাব করা হয়েছে। সোমবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এক সভায় এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সভা শেষে এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. এ এফ এম মনজুর কাদির জাগো নিউজকে বলেন, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা ৪ মে আয়োজনের কথা থাকলেও তা পরিবর্তন করে ১১ মে প্রস্তাব করা হয়েছে। উক্ত সময়ের মধ্যে যদি প্রাথমিক শিক্ষক অধিদফতর ও জেলা পর্যায়ে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়, তাহলে ১১ মে পরীক্ষা হবে। এছাড়া আরও দুই-একদিন পেছানোর প্রস্তাব করা হয় সভায়।

জানা গেছে, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ‘সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০১৪’ নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা চলতি মাসের ২০ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হয়। সেদিন দেশের ১২ জেলায় এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। দ্বিতীয় ধাপে ২০ জেলায় নিয়োগ পরীক্ষা হবে।

এ বিষয়ে ডিপিই’র অতিরিক্ত মহাপরিচালক মো. রমজান আলী জাগো নিউজকে বলেন, দ্বিতীয় ধাপে ২০টি জেলায় শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ১১ মে এ পরীক্ষা আয়োজন করতে মন্ত্রণালয় প্রস্তুতি নিতে বলেছে। দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষার পর তৃতীয় ধাপের সময় চূড়ান্ত করা হবে।

জেলাগুলো হলো- চাঁপাইনবাবগঞ্জ, কুষ্টিয়া, মাগুরা, বাগেরহাট, শেরপুর, মানিকগঞ্জ, রাজবাড়ী, ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ, নোয়াখালী, কক্সবাজার, পিরোজপুর, পটুয়াখালী, ভোলা, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, মৌলভীবাজার, পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও ও লালমনিরহাট।

সভায় আগামী মে মাসের মধ্যে সব জেলায় নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা শেষ করতে বলা হয়েছে। পরবর্তী দুই মাসের মধ্যে মৌখিক পরীক্ষা আয়োজন করা হবে। এছাড়া সুষ্ঠুভাবে নিয়োগ পরীক্ষার আয়োজন, নিরাপত্তা জোরদার এবং দ্রুত সময়ের মধ্যে ফল প্রকাশের বিষয় নিয়ে সভায় আলোচনা হয়েছে বলে অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান।

ওএমআর শিট পূরণের নির্দেশনাবলী ও পরীক্ষা-সংক্রান্ত অন্যান্য তথ্য www.dpe.gov.bd এই ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

এমএইচএম/এমএমজেড/জেএইচ/পিআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :