জায়েদ খানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ, হারাতে পারেন সদস্যপদ

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৪৯ পিএম, ১৩ জুলাই ২০২০

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক ও প্রযোজক জায়েদ খান। তার বিরুদ্ধে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠিয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতি। সংগঠনটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, প্রযোজক সমিতির একজন সদস্য হিসেবে ‘সংগঠনের স্বার্থবিরোধী কর্মকাণ্ডে’ তার জড়িত থাকার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এজন্যই আজ সোমবার (১৩ জুলাই) জায়েদ খানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠানো হয়েছে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রযোজক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু বলেন, ‘সংগঠনের স্বার্থের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ায়’ সমিতির সংঘবিধি মোতাবেক গত ৭ মার্চ কার্যনির্বাহী পরিষদের ৭ম সভায় তাকে কারণ দর্শানো নোটিশ পাঠানোর সিদ্ধান্ত সর্বসম্মতিক্রমে গৃহিত হয়েছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে প্রযোজক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলমের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পরামর্শ দেন তিনি।

প্রযোজক নেতা শামসুল আলম এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘চলচ্চিত্র নির্মাণে শৃঙ্খলা আনতে ও নির্মাণ ব্যয় কমিয়ে কাজের গতি বাড়াতে গত বছরের অক্টোবরে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সব সংগঠনের সমন্বয়ে একটি নীতিমালা প্রণয়ন করে। এটি বাস্তবায়ন হলে চলচ্চিত্র নির্মাণে ন্যূনতম ১৫ লাখ টাকা ব্যয় কমে আসবে। বিষয়টি গণমাধ্যমেও প্রকাশ হয় এবং বেশ প্রশংসিত হয় এ উদ্যোগ।

কিন্তু সেই উদ্যোগটি নষ্ট করার চেষ্টা করছেন জায়েদ খান। তার বিরুদ্ধে এ নীতিমালা না মানতে শিল্পীদের ক্ষুদেবার্তা পাঠানোর অভিযোগ উঠেছে। প্রযোজক সমিতির সদস্য হয়েও তার এমন কর্মকাণ্ড প্রযোজক সমিতির স্বার্থের পরিপন্থী। ঘটনার ব্যাখ্যা তার কাছে চাওয়া হয়েছে। আশা করছি তিনি সঠিক ব্যাখ্যা দিয়ে সমিতিকে সন্তুষ্ট করতে পারবেন।’

অন্যথায় কারণ দর্শনো নোটিশের ভিত্তিতে প্রযোজক সমিতি থেকে জায়েদ খানের সদস্যপদ স্থগিত বা বাতিল করা হতে পারে বলেও ধারণা করা হচ্ছে। এ বিষয়ে শামসুল আলম বলেন, এমন কোনো সিদ্ধান্ত এখনো নেয়া হয়নি। জায়েদ খানের ব্যাখ্যা পেয়ে সে অনুযায়ী সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে।

এদিকে আগামীকাল মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) এফডিসিতে এক জরুরি সভা ডেকেছে শিল্পী সমিতি ব্যতীত চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অন্য সংগঠনগুলো। সেখানে জায়েদ খানের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ড নিয়ে আলোচনা হবে বলে ঘনিষ্ঠ সূত্র নিশ্চিত করেছে।

flim

এসব বিষয়ে জায়েদ খানের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালে মোহাম্মদ হান্নানের ‘ভালোবাসা ভালোবাসা’ চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে ঢালিউডে পা রাখেন পিরোজপুরে জন্ম নেওয়া জায়েদ খান। এরপর বেশকিছু ছবিতে নায়ক হিসেবে অভিনয় করলেও নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে ব্যর্থ হন তিনি।

অবশেষে ২০১৭ সালে নিজেই প্রযোজনায় আসেন। জেড. কে মুভিজ নাম দিয়ে ওই প্রতিষ্ঠানের ব্যানারে প্রথম চলচ্চিত্র হিসেবে নির্মিত হয় ‘অন্তরজ্বালা’। প্রযোজনার পাশাপাশি এতে চিত্রনায়িকা পরীমনির বিপরীতে অভিনয়ও করেন জায়েদ। এরপর ‘টেনশন’ শিরোনামে আরেকটি চলচ্চিত্র প্রযোজনার ঘোষণা দিলেও সেই ছবির কোনো অগ্রগতি দেখা যায়নি।

সিনেমায় অনিয়মিত হলেও টানা দুই মেয়াদে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। ২০১৯ সালের নির্বাচনে জায়েদ খান সাধারণ সম্পাদক পদে ২৮৪ ভোট পেয়ে জয়ী হন।

এলএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]