পরিমাণ বোঝাতে কেন ‘কে’ ব্যবহৃত হয়?

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:০০ এএম, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৭

ইন্টারনেটের কল্যাণে সংখ্যায় হাজারের পরিবর্তে ইংরেজি ‘কে’ বর্ণটিকে দেখতে পাই। টাকার হিসাব, ফেসবুক বা ওয়েব পোর্টালের লাইক, কমেন্ট ও শেয়ারের বেলায়ও ‘কে’ বর্ণটি দেখানো হয়। ফলে অনেকের মনেই প্রশ্ন জাগে- এই ‘কে’ দ্বারা কী বোঝানো হচ্ছে। আসুন তবে জেনে নেই সেই ‘কে’ এর মূল কথা।

কেন এই ‘কে’
বাংলা হাজারের গ্রিক শব্দ হচ্ছে ‘কিলিওই’। তার মানে, ১ হাজার বোঝানোর জন্য তারা ‘কিলিওই’ ব্যবহার করতেন। পরে তাদের দেখাদেখি এই এককটি ব্যবহার করতে শুরু করেন ফরাসিরাও। ফরাসিদের কাছে গ্রিক শব্দ ‘কিলিওই’ পরিবর্তন হয়ে ‘কিলো’ হয়ে যায়। পরে ধারাবাহিকভাবে মেট্রিক পদ্ধতির সঙ্গে পরিচিত হয়ে ওঠেন ফরাসিরা। ফলে ‘কিলো’কে ১ হাজার হিসেবে লিখতে শুরু করেন।

প্রচলন
এছাড়া ব্যবসা-বাণিজ্য প্রসারের সঙ্গে সঙ্গে সারা বিশ্বে ১ হাজার প্রচলিত হয়ে যায়। কিন্তু ১ হাজারও খুব বেশিদিন একইভাবে টিকতে পারেনি। ১ হাজার লিটার, ১ হাজার গ্রামের পরিবর্তে আস্তে আস্তে প্রচলিত হয়ে ওঠে কিলোলিটার, কিলোগ্রাম, কিলোটনের মতো নতুন শব্দ। কিন্তু শব্দগুলো অনেক বড় বড়। তাই সময় বাঁচাতে শব্দগুলোকে সংক্ষেপে ‘কে’ লেখা শুরু হয়। তখন থেকেই হাজার বোঝাতে ‘কে’র প্রচলন শুরু হয়।

এসইউ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :