কানাডা যেতে কোথায় মেডিকেল চেকআপ করবেন

আবু তালহা
আবু তালহা আবু তালহা , লেখক
প্রকাশিত: ০১:২২ পিএম, ২৪ জানুয়ারি ২০১৯

কানাডা বিশ্বের অন্যতম অর্থনৈতিক সমৃদ্ধ দেশ। এ দেশে অনেকেই যেতে চান। যে দেশে প্রতি মাসে বৈধভাবে চাকরি করে সর্বনিম্ন ৩ থেকে ৪ লাখ টাকা উপার্জন করা যায়। বাংলাদেশ কানাডা সরকারের অভিবাসন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে ভূমিকা পালন করে আসছে।

অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশ কানাডাতে শ্রমিক রফতানিকারক দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করবে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ স্টুডেন্ট রফতানিতে ৪র্থ অবস্থানে রয়েছে। কানাডার যে কোন ভিসা আবেদনের জন্যই ভিসার প্রয়োজনীয় শর্তাবলী পূরণ করতে হয়। সুতরাং মেডিকেল চেকআপ, কানাডা জব ভিসার অন্যতম একটি শর্ত।

কানাডার মেডিকেল নিয়ে প্রায়ই প্রতারণার কথা শোনা যায়। আসল বিষয়টি হলো কানাডার কোন ভিসার জন্য মেডিকেল চেকআপ লাগে এবং কখন কোন মেডিকেল সেন্টার থেকে মেডিকেল করতে হয়, তা সবার আগে জানতে হবে। যদি আপনার তা জানা না থাকে, তবে আপনি প্রতারিত হতে পারেন।

> আরও পড়ুন- সাড়ে ৩ লাখ অভিবাসী নেবে কানাডা

আসুন তাহলে জেনে নেই কানাডার মেডিকেল সেন্টার সম্পর্কে। প্রথমেই জানতে হবে বাংলাদেশের কোন কোন মেডিকেল সেন্টারে কানাডা সরকারের অনুমোদন আছে। এছাড়া কখন মেডিকেল রিপোর্ট চাওয়া হয় এবং মেডিকেল ফি জেনে নিতে পারেন।

jagonews

বাংলাদেশে শুধু ৩টি মেডিকেল সেন্টারের অনুমোদন আছে। সেগুলো হলো-

১. ডক্টর ওয়াহাব মেডিকেল সেন্টার, হাউস-০৩, রোড-১২, বারিধারা, ঢাকা-১২১২। টেলিফোন: ০২-৯৮৪৭৫৫৩, ৯৮৪৩৪৩৯।
২. গ্রীন ক্রিসেন্ট হেলথ সার্ভিস, ৬০ পার্ক রোড, বারিধারা ডিপ্লোম্যাটিক জোন, ঢাকা-১২১২। টেলিফোন: ০২-৫৮৮১৭৩৩৫, ৯৮৬২৩৮৪।
. আইওএম মাইগ্রেশন হেলথ অ্যাসেসমেন্ট ক্লিনিক, ১৩/এ, গ্রাউন্ড ফ্লোর, রোড-১৩৬, গুলশান-০১, ঢাকা-১২১২।

এরপর জানতে হবে কখন অ্যাম্বাসি থেকে মেডিকেল করতে বলা হয়। আপনার ফাইল ভিএফএসে (ঢাকা) জমা দেয়ার সর্বোচ্চ ২৪-৭২ ঘণ্টার মধ্যে কানাডা হাই কমিশন, সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয়। একটি ফাইল প্রসেস করতে বর্তমানে ১৬-২৬ দিন সময় লাগে। ফাইল প্রসেসিং অবস্থায় কানাডিয়ান হাই কমিশন, সিঙ্গাপুর আপনার ই-মেইলে (আবেদনপত্রে যে ই-মেইল) মেডিকেল ফর্ম (এক্সামিনেশন রেফারিয়াল লেটার, আইএমই) পাঠাবে। আপনাকে বাংলাদেশে অবস্থিত কানাডা সরকার অুনমোদিত যে কোন একটি মেডিকেল থেকে হেলথ চেকআপ করে ভিএফএস ঢাকার মাধ্যমে রিপোর্ট জমা দিতে বলা হবে। কানাডার এই মেডিকেলকে ইলেক্ট্রনিক মেডিকেলও বলা হয়।

jagonews

> আরও পড়ুন- বিশ্বের সবচেয়ে ধনী দেশ মোনাকো 

আসলে কোন কোন ভিসার জন্য মেডিকেল করতে হয়? এ ক্ষেত্রে জব ভিসা, স্টুডেন্ট ভিসা, মেডিকেল ভিসা ও ইমিগ্র্যান্ট ভিসার জন্য মেডিকেল রিপোর্ট চাওয়া হয়। আপনি শারীরিক ও মানসিকভাবে কতটা উপযুক্ত তা নির্ণয় করার জন্যই মেডিকেল রিপোর্ট চাওয়া হয়।

মেডিকেল ফি কানাডা সরকার নির্ধারিত। বয়স্কদের জন্য (১৪-৪৯) ৪৮,০০ টাকা। ১১-১৪ বছরের শিশুদের জন্য ৩,৩৫০ টাকা এবং ১১ বছরের নিচে শিশুদের জন্য ৩,২০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। সাধারণত এক্স-রে ও টিবি (যক্ষ্মা) চেকআপ করা হয়। তবে একটি কথা মনে রাখবেন, কানাডায় প্রি-মেডিকেল বলে কিছু নেই।

এসইউ/আরআইপি