মানসিক চাপ কমাবে যে ১০ খাবার

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৫৬ পিএম, ২৪ ডিসেম্বর ২০১৯

গবেষণায় দেখা গেছে, বাংলাদেশের ১৬.৮% মানুষ মানসিক বিষণ্নতায় ভুগছে। যা দিন দিন বেড়েই চলছে। তাছাড়া মানসিক চাপ দেহে ফ্রি র‌্যাডিকেল তৈরি করে, যা ক্যান্সার সৃষ্টির অন্যতম উপাদান। তাই কিভাবে আমরা মানসিক চাপ বা বিষণ্নতা কমাবো, সে ব্যাপারে জানা উচিত। আসুন জেনে নেই কী কী খাবার খেলে মানসিক চাপ কমবে। বিস্তারিত জানাচ্ছেন মো. বিল্লাল হোসেন—

টার্কির মাংস: দেহের প্রোটিনের অন্যতম উৎস মুরগির মাংস। বিশেষ করে টার্কি মুরগির বুকের মাংস, যা মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে। এ খাবারে দেহে অ্যামিনো অ্যাসিড উৎপন্ন হয়। এছাড়া এ মুরগিতে উপস্থিত প্রোটিন সেরাটোনিন উৎপাদনেও সাহায্য করে। যা আমাদের ক্ষুধা বাড়ায়, মন প্রফুল্ল রাখে এবং অনুভূতি শক্তি বাড়ায়।

স্যামন মাছ: স্যামন মাছ খুবই পুষ্টিকর একটি মাছ। স্যামন মাছে থাকা ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড আমাদের স্ট্রেস হরমোনের প্রভাব থেকে রক্ষা করে। স্যামন মাছের এক তৃতীয়াংশ আউন্সে দুই হাজার মিলিগ্রামেরও বেশি ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড পাওয়া যায়।

stress-cover

শাক-সবজি: মানসিক চাপ কমাতে শীতকালীন পালংশাক অন্যতম। পালংশাক শরীরে ডোপামিন তৈরি করে। ডোপামিন আমাদের মেজাজ শান্ত রাখতে সাহায্য করে। ২০১৩ সালে ওটাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের এক জরিপে দেখা গেছে, শিক্ষার্থীরা সবুজ শাক-সবজি এবং ফল খেলে আগের চাইতে প্রফুুল্ল অনুভব করে। একই সাথে তাদের মন-মেজাজ শান্ত ও খুশি থাকে।

জাম: জাম একটি উপকারী ফল। জাম থেকে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও ফাইটো নিউট্রিয়েন্টস যেমন-ক্যামফেরল, কোয়েরসিটিন, ইলাজিক অ্যাসিড, সায়ানিডিন-৩-গ্লুকোসাইড পাওয়া যায়। যা আমাদের মানসিক অবস্থার উন্নতি ঘটাতে সক্ষম। যেসব ফল আমাদের মানসিক চাপ থেকে নিস্তার দিতে পারে, তার মধ্যে জাম অন্যতম।

পেস্তা বাদাম: কোনো ধরনের দুশ্চিন্তা দূর করতে হাতের বিভিন্ন অকারণ কাজও বেশ সাহায্য করতে পারে। যেমন-হাতে রুটি তৈরি করা বা বাদামের খোসা ছাড়ানো। আবার পেস্তা বাদাম খেলেও আমাদের মানসিক চাপ কমে। পেস্তা বাদাম হৃৎপিণ্ডের জন্যও খুব উপকারী।

stress-in-(1)

অ্যাভোকাডো: অনেক পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ ফল অ্যাভোকাডো। যা শরীরের জন্য উপকারী। সকালে এবং দুপুরে অনেকে এ ফল খাওয়ার অভ্যাস করে। যা সারাদিন মন প্রফুুল্ল রাখতে সাহায্য করে। মানসিক চাপ কমাতেও এটি অনেক উপাদেয়।

বীজ: বিভিন্ন সবজির বীজও অনেক পুষ্টিকর। কুমড়া, শন ও সূর্যমুখী বীজ ইত্যাদি থেকে ম্যাগনেসিয়াম পাওয়া যায়। যা শরীরের জন্য খুবই উপকারী। সবজির বীজ খাওয়ার মাধ্যমে মানসিক চাপ কিছুটা কমে। কারণ সবজি বীজে বিভিন্ন ধরনের ফাইটোকেমিক্যালস থাকে।

টক দই: টক দই মানসিক চাপ কমাতে খুবই উপকারী। টক দইয়ের ব্যাকটেরিয়া আমাদের দেহে আত্মবিশ্বাস ও সাহস বাড়ায়। পাশাপাশি চাপ কমায়। টক দই খেলে সাময়িকভাবে মানসিক অশান্তি থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

stress-in-(2)

ডার্ক চকলেট: চকলেটের এক কামড় মানসিক চাপ কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। ডার্ক চকলেট স্ট্রেস হরমোন কর্টিসেলের পরিমাণ কমায়। এছাড়া চকলেটের কোকোয়াতে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উচ্চ রক্তচাপ কমায় এবং রক্ত চলাচলে সাহায্য করে।

দুধ: দুধ ভিটামিন ‘ডি’র অন্যতম উৎস। গবেষণা থেকে জানা গেছে, দুধ ভিটামিন ‘ডি’র খোরাক জোগায়। কারণ ভিটামনি ডি একটি ফ্যাট সলিউবল ভিটামিন। সুতরাং বলা যায়, মানসিক চাপ কমাতে যেসব খাবার উপকারী, তার মধ্যে দুধ অন্যতম।

লেখক: শিক্ষার্থী, জীববিজ্ঞান অনুষদ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া।

এসইউ/পিআর