ই-পাসপোর্ট পাবেন কত দিনে?

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:২৩ এএম, ২২ জানুয়ারি ২০২০

ই-পাসপোর্টের বিতরণ কার্যক্রম শুরু হচ্ছে আজ (বুধবার) থেকে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে ই-পাসপোর্টের উদ্বোধন করবেন। প্রাথমিকভাবে আগারগাঁও, যাত্রাবাড়ী ও উত্তরা পাসপোর্ট অফিস থেকে এবং পরে পর্যায়ক্রমে সব জায়গায় ই-পাসপোর্ট বিতরণ করা হবে।

জেনে নেই ই-পাসপোর্ট পেতে কত দিন লাগবে

ই-পাসপোর্ট মূলত ৪৮ ও ৬৪ পাতার। এ পাসপোর্টের ধরন তিন রকম। যেমন- ‘অতি জরুরি’, ‘জরুরি’ ও ‘সাধারণ’। পাঁচ বছর ও ১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্টের জন্য ভিন্ন ভিন্ন হারে ফি জমা দিতে হবে।

৫ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট

১. ৪৮ পাতার ‘অতি জরুরি পাসপোর্ট’ দুদিনে পেতে ফি দিতে হবে ৭ হাজার ৫০০ টাকা।
২. ৪৮ পাতার ‘জরুরি পাসপোর্ট’ সাত দিনে পেতে ফি দিতে হবে ৫ হাজার ৫০০ টাকা।
৩. ৪৮ পাতার ‘সাধারণ পাসপোর্ট’ ১৫ দিনে পেতে ফি দিতে হবে ৩ হাজার ৫০০ টাকা।

১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট

১. ৪৮ পাতার ‘সাধারণ পাসপোর্ট’ ১৫ দিনে পেতে ফি দিতে হবে ৫ হাজার টাকা।
২. ৪৮ পাতার ‘জরুরি পাসপোর্ট’ সাত দিনে পেতে ফি দিতে হবে ৭ হাজার টাকা।
৩. ৪৮ পাতার ‘অতি জরুরি পাসপোর্ট দুদিনে পেতে ফি দিতে হবে ৯ হাজার টাকা।

৫ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট

১. ৬৪ পাতার ‘সাধারণ পাসপোর্ট’ ১৫ দিনে পেতে ফি দিতে হবে ৫ হাজার ৫০০ টাকা।
২. ৬৪ পাতার ‘জরুরি পাসপোর্ট’ সাত দিনে পেতে ফি দিতে হবে ৭ হাজার ৫০০ টাকা।
৩. ৬৪ পাতার ‘অতি জরুরি পাসপোর্ট’ দুদিনে পেতে ফি দিতে হবে ১০ হাজার ৫০০ টাকা।

১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট

১. ৬৪ পাতার ‘সাধারণ পাসপোর্ট’ ১৫ দিনে পেতে ফি দিতে হবে ৭ হাজার টাকা।
২. ৬৪ পাতার ‘জরুরি পাসপোর্ট’ সাত দিনে পেতে ফি দিতে হবে ৯ হাজার টাকা।
৩. ৬৪ পাতার ‘অতি জরুরি পাসপোর্ট’ দুদিনে পেতে ফি দিতে হবে ১২ হাজার টাকা।

তবে এ ফি’র সঙ্গে ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট জমা দিতে হবে। ই-পাসপোর্টের আবেদনপত্র জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্মনিবন্ধন সনদ অনুযায়ী পূরণ করতে হবে। অপ্রাপ্ত বয়স্ক (১৮ বছরের কম) আবেদনকারী, যার জাতীয় পরিচয়পত্র নেই, তার পিতা-মাতার জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর অবশ্যই উল্লেখ করতে হবে।

এসইউ/জেআইএম