নতুন বছরে তরুণদের প্রত্যাশা

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৩৭ এএম, ০১ জানুয়ারি ২০২১

 

২০২০ সালের পাওয়া-না পাওয়ার স্মৃতি ঝেরে ফেলে নতুন আশায় বুক বেঁধেছে বিশ্ববাসী। সেই ভাবনায় পিছিয়ে নেই আমাদের তরুণরাও। নতুন বছরে সড়কে নিরাপত্তা, যোগ্যতা অনুযায়ী কর্মসংস্থানের সুযোগ কিংবা সমাজের দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন চান তরুণরা। তাদের এসর চাওয়ার পেছনে কাজ করছে একটাই ভাবনা- দেশের মাটিতে নিরাপদ ভবিষ্যৎ। কয়েকজন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া তরুণের ভাবনা জানাচ্ছেন মামুনূর রহমান হৃদয়-

মো. ফয়সাল ইসলাম মানিক, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
একটি দেশের উন্নয়নের পেছনে যদি পাঁচটি নির্দিষ্ট খাত থাকে। তাহলে ওই খাতের মধ্যে কর্মসংস্থান একটি। কারণ একটি দেশের অর্থনীতি তখনই শক্তিশালী হয়; যখন সেই দেশের ৮০ শতাংশ মানুষের নির্দিষ্ট কর্মসংস্থান থাকে। করোনা সারা দুনিয়ার অর্থনীতিতে ধস নামিয়েছে। বাংলাদেশের প্রায় ১০ কোটি ২২ লাখ মানুষের আয় কমেছে৷ পরিবার হিসেবে আয় কমেছে শতকরা প্রায় ৭৪ ভাগ পরিবারের। শিক্ষিত গ্র্যাজুয়েটদের চাহিদার তুলনায় কর্মসংস্থানের সুযোগ খুবই অপ্রতুল। তাই বেকারমুক্ত বাংলাদেশই হতে পারে ২০২১ সালের চালিকাশক্তি।

নিফাত সুলতানা মৃধা, সরকারি তিতুমীর কলেজ
ক্ষুধার্তকে খাবার দেওয়া পূণ্যের কাজ। তাছাড়া সহানুভূতি ও মানবিকতার পরিচয়। বিবেকবান মানুষমাত্রই এটি উপলব্ধি করেন। তবে ইচ্ছা ও সংকল্পের অভাবে এ কাজ অনেক সময় অবহেলিত হয়। ভয়াল করোনার থাবা অসংখ্য মানুষের দু’বেলার খাবার কেড়ে নিয়েছে। অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশও ক্ষুধামুক্ত বিশ্ব গড়তে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তাই আমি স্বপ্ন দেখি, ২০২১ হোক ক্ষুধামুক্ত সোনার বাংলার।

মো. মেহেদী হাসান সম্রাট, প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়
দারিদ্র্যের সঙ্গে শিক্ষার সম্পর্ক বিপরীতধর্মী ও দ্বান্দ্বিক। সাধারণভাবে চারদিকে তাকালেই এর সত্যতা চোখে পড়ে। আমরা দেখতে পাই, যে মানুষ দরিদ্র তারা অধিকাংশই হয় নিরক্ষর না হয় স্বল্পশিক্ষিত। তবে ব্যতিক্রম হিসেবে স্বল্পশিক্ষিত কিছু ধনী লোককেও দেখতে পাই। কিন্তু তাদের এ প্রাচুর্যের পেছনেও কোনো না কোনো মানসিক শিক্ষা সক্রিয় ছিল। এককথায়, শিক্ষার আলো ছাড়া কোনো জাতির পক্ষে বেশিদিন টিকে থাকা সম্ভব নয়।

ফারিয়া আক্তার, কিশোরগঞ্জ নার্সিং ইনস্টিটিউট
নতুন বছরে মনুষ্যত্ববোধের সূচনা হোক মানুষের মধ্যে। যাতে সবাই একে অপরের দুঃখে-কষ্টে পাশে থাকতে পারে। যেন আর কেউ বিনা চিকিৎসায় মারা না যায়। যেন আর কেউ টাকার অভাবে স্কুলের ব্যাগ ফেলে রাস্তায় ইট না ভাঙে। কোনো বাবা-মার কোল অবেলায় খালি না হয়। মানুষ যেন অনাহারে দিন পার না করে। ২০২১ সালে সব হৃদয়ে মানবতার উৎপত্তি হোক।

মো. আরমান মিয়া, ঢাকা কলেজ
তরুণরাই ভবিষ্যতে দেশের পরিচালক। তাই মাদক দ্বারা তরুণ প্রজন্ম প্রভাবিত হলে সমাজও সমানভাবে প্রভাবিত হয়। মাদকাসক্ত তরুণের পরিবার সবচেয়ে বেশি ক্ষতির সম্মুখীন হয়। অনেক সময় আসক্ত বেকার তরুণ মাদকের অর্থ জোগাড় করতে চুরি, ছিনতাই ও ডাকাতির মতো কাজেও প্রবৃত্ত হয়। মাদকের আগ্রাসন থেকে যদি তরুণ সমাজকে না বাঁচানো যায়, তাহলে সবই শেষ হয়ে যাবে। তাই মাদকবিরোধী অভিযান আরও জোরদার হোক- এটাই আমার চাওয়া।

সুমাইয়া আক্তার, ইডেন মহিলা কলেজ
দুর্নীতি জাতীয় জীবনের এক বিরাট অভিশাপ। জাতির আশা-আকাঙ্ক্ষা বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে মারাত্মক প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। সত্য ও ন্যায়ের পথই হচ্ছে আসল পথ। সেই পথকে পরিহার করে কোনো মানুষ যদি মিথ্যাকে আঁকড়ে ধরে, যদি দুর্নীতি গভীরে নিমজ্জিত হয়। তাহলে জাতীয় উন্নয়নের আর কোনো সম্ভাবনা থাকে না। তাই ২০২১ সাল যেন দুর্নীতিমুক্ত; সে আশাই ব্যক্ত করছি।

এসইউ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]