আবুল ফজল ও ড. নীহাররঞ্জন রায়ের জন্ম

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:০১ এএম, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

মানুষ ইতিহাস আশ্রিত। অতীত হাতড়েই মানুষ এগোয় ভবিষ্যৎ পানে। ইতিহাস আমাদের আধেয়। জীবনের পথপরিক্রমার অর্জন-বিসর্জন, জয়-পরাজয়, আবিষ্কার-উদ্ভাবন, রাজনীতি-অর্থনীতি-সমাজনীতি একসময় রূপ নেয় ইতিহাসে। সেই ইতিহাসের উল্লেখযোগ্য ঘটনা স্মরণ করাতেই জাগো নিউজের বিশেষ আয়োজন আজকের এই দিনে।

১৪ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার। ৩০ পৌষ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ।

ঘটনা
১৫১৪- দাসপ্রথার বিরুদ্ধে পোপ লিও এক্স ঘোষণা দেন।
১৯৩৮- আজকের মকর সংক্রান্তির দিনে বেলুড়মঠের রামকৃষ্ণ মন্দিরের দ্বারোদ্ঘাটন করা হয়।
১৯৬৯- পূর্ব বাংলা ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের ১১ দফা কর্মসূচী গৃহীত হয়।
১৯৭২- ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে নিহত মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানে স্বাধীন বাংলাদেশে জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়।
২০০৫- শনি গ্রহের চাঁদ টাইটানে হুইজেন্স প্রোবের অবতরণ।

জন্ম
১৫৫১- মুঘল যুগের শ্রেষ্ঠ ঐতিহাসিক আবুল ফজল। পুরো নাম শেখ আবুল ফজল আল্লামি। বলা হয়, আবুল ফজল আড়াই হাজার বছরের ইতিহাসে ভারতবর্ষের শ্রেষ্ঠতম চিন্তাবিদ। তিনি ছিলেন মুঘল সম্রাট আকবরের প্রধানমন্ত্রী। আবুল-ফজল, আবুল ফদল ও আবুল ফদল 'আল্লামি নামেও পরিচিত। তিনি তিন খণ্ডে রচিত আকবরের রাজত্বকালের সরকারি ইতিহাস গ্রন্থ আকবরনামা ও উক্ত গ্রন্থের তৃতীয় খণ্ড আইন-ই-আকবরি-এর রচয়িতা এবং বাইবেলের একটি ফার্সি অনুবাদের অনুবাদক।

১৮৩১- বাঙালি পুরাতত্ত্ববিদ এবং লোকসংস্কৃতি বিশেষজ্ঞ তারাপদ সাঁতরা।
১৯০৩- ইতিহাসবিদ ড.নীহাররঞ্জন রায়। ময়মনসিংহের কিশোরগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন তার। তিনি ছিলেন বাঙালি ইতিহাসবিদ, সাহিত্য সমালোচক ও শিল্পকলা-গবেষক পণ্ডিত। দেশবরেণ্য ও আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মনীষী ছিলেন তিনি। ১৯৮১ সালের ৩০শে আগস্ট কলকাতায় তার বাসভবনে মারা যান তিনি।
১৯২৪- বিশিষ্ট ভারতীয় বাঙালি অভিনেতা ও গায়ক সবিতাব্রত দত্ত।
১৯২৬- ভারতীয় বাঙালি সাহিত্যিক ও মানবাধিকার আন্দোলনকর্মী মহাশ্বেতা দেবী।

মৃত্যু
১৯৫৪- ভারতের ব্রিটিশবিরোধী স্বাধীনতা সংগ্রামী বিপিনবিহারী গঙ্গোপাধ্যায়।
১৯৬২- কল্লোল, কালিকলম, প্রগতি পর্বের শক্তিমান লেখক অমরেন্দ্রনাথ ঘোষ।
১৯৭১- প্রগতিবাদী সাহিত্যিক ও সংগঠক দীপেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়।
১৯৭২- ভারতীয় বাঙালি অভিনেত্রী অনুভা গুপ্ত।
২০০৮- বাংলাদেশি নাট্যকার সেলিম আল দীন।

কেএসকে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]