দেড় লাখ ডলারে পর্ন তারকার মুখ বন্ধ করেন ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৫৮ পিএম, ১৩ জানুয়ারি ২০১৮

যৌন সম্পর্কের ব্যাপারে মুখ বন্ধ রাখতে গত বছর মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে এক পর্ন তারকাকে ১ লাখ ৩০ হাজার ডলার দিয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই সময়ের রিপাবলিকান দলীয় প্রার্থী ট্রাম্পের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক নিয়ে প্রকাশ্যে কথা না বলতে এক আইনজীবীর মাধ্যমে ওই তারকাকে ২০১৬ সালে নির্বাচনের এক মাস আগে এ অর্থ দেয়া হয়।

শনিবার মার্কিন প্রভাবশালী দৈনিক ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ২০০৫ সালে মেলানিয়া ট্রাম্পকে বিয়ে করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তৃতীয় এ বিয়ের আগের বছর ২০০৬ সালে পর্ন তারকা স্টিফেন ক্লিফর্ডের মুখ বন্ধ রাখতে ওই অর্থ দেন ট্রাম্পের আইনজীবী মাইকেল কোহেন। লস অ্যাঞ্জেলসের সিটি ন্যাশনাল ব্যাংকের এক গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে ওই অর্থ স্থানান্তর করা হয়।

তবে আরেক মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট পর্ন তারকাকে বশে আনতে ট্রাম্পের অর্থ পরিশোধের তথ্য নিশ্চিত করতে পারেনি এবং ব্যাংক কর্তৃপক্ষের বক্তব্যও জানা যায়নি।

Stormy-Daniels

ট্রাম্পের আইনজীবী কোহেন বলেন, বিভিন্ন সময় এই গুজব ছড়িয়ে পড়ে। ২০১১ সালে আবারও গুজব রটে। তবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এ ধরনের কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার তথ্য বারবার অস্বীকার করেছেন। পরে কোহেন এক বিবৃতিতে ক্লিফর্ডের মূল নাম হিসেবে স্টর্মি ড্যানিয়েল বলেন।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে ক্লিফর্ড বলেন, ২০০৬ সালে পরিচয়ের পর ট্রাম্পের সঙ্গে যৌন সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তিনি; এতে দু’জনেরই সম্মতি ছিল। ক্যালিফোর্নিয়ার লেইক তাহোতে ট্রাম্পের সঙ্গে পরিচয়ের সময় ক্লিফর্ডের বয়স ছিল ২৭ বছর।

তবে এই সম্পর্কের বিনিময়ে ট্রাম্পের কাছ থেকে অর্থ নেয়ার অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছেন ক্লিফর্ড। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ট্রাম্পের কাছে থেকে গোপনে অর্থ নিয়েছি বলে যে অভিযোগ উঠেছে তা সম্পূর্ন মিথ্যা। সত্যিই ট্রাম্পের সঙ্গে আমার এক ধরনের সম্পর্ক ছিল; যেটা আপনি সংবাদে পাবেন না। এ ব্যাপারে আমার বইয়ে জানা যাবে।

সূত্র : দ্য হিল।

এসআইএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :