দুবাইয়ে খাবারের অভাবে জাহাজে আটকা ৮ ভারতীয় নাবিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৫৩ পিএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পকেটে নেই টাকা, নয়মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না। খাবারও মিলছে না। এমন অবস্থায় দুবাইয়ে আটকা পড়ে আছেন আট ভারতীয় নাবিক। গত নভেম্বরে তাদের সেখানে পাঠায় একটি ভারতীয় আমদানি-রফতানি সংস্থা। ওই নাবিকদের অভিযোগ, দুবাইয়ে পাঠানোর পর মাত্র একমাস পারিশ্রমিক পেয়েছেন তারা। বাকি নয়মাসের পারিশ্রমিক তারা এখনও পাননি।

যে পরিমাণ অর্থ নিয়ে তারা সেখানে পাড়ি দিয়েছিলেন তাও শেষ হয়ে গেছে। ফলে কার্যত না খেয়ে কষ্ট করে দিন কাটছে তাদের। অথচ নিয়োগকারী সংস্থার পক্ষ থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি।

ইতোমধ্যেই ওই সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফেডারেল ট্রান্সপোর্ট অথরিটি। সংস্থাটিকে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে ওই আট নাবিককে দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার। তবে ওই সংস্থাটি কার্যত দেউলিয়া হয়ে গেছে। তাই শ্রমিকদের কাছে একটি প্রস্তাব রেখেছে তারা। ওই নাবিকদের বলা হয়েছে, একমাসের পারিশ্রমিক নিয়ে দেশে ফিরে আসতে। এরপর তাদের জাহাজ বিক্রি করে বাকি পারিশ্রমিক মিটিয়ে দেওয়া হবে বলে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

ওই নাবিকরা জানান, নয়মাস আগে তাদের ন্যূনতম অর্থ ও খাদ্য দিয়ে দুবাইয়ে পাঠানো হয়। যাত্রাপথের মাঝেই শেষ হতে থাকে তাদের খাবার। এমনকি ফুরোতে থাকে জাহাজের জ্বালানিও। এরপর প্রয়োজনের তুলনায় কম খেয়ে, খাবার জমাতে থাকেন তারা। আট নাবিককে নিয়ে অবশেষে কোনওক্রমে দুবাইয়ে পৌঁছায় এমভি টাপম্যান নামের জাহাজটি। কয়েকদিন সেখানে তাদের খাবার দেয় নটিক্যাল ইন্সটিটিউট নামের একটি সংস্থা। তবে তারাও এখন আর কোন সহায়তা দিচ্ছে না। নিজেদের পরিবারের অবস্থা নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন ওই আট নাবিক। মানসিক অবসাদে আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে পারেন বলে জানিয়েছেন তারা।

টিটিএন/আরআইপি

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]