এবার গাঁজায় নজর মার্লবোরোর মালিকের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:২৬ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮

মার্লবোরো সিগারেটের উৎপাদনকারী ও বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ তামাক কোম্পানি অ্যাল্ট্রিয়া গ্রপ এবার গাঁজা উৎপাদনে বিনিয়োগ করছে। মার্কিন এই কোম্পানি বলছে, কানাডায় আমোদ-প্রমোদের জন্য গাঁজা সেবন বৈধতা পাওয়ার তারা দেশটিতে ৩৮০ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগের পরিকল্পনা করছে।

শুক্রবার মার্লবোরোর উৎপাদক এই কোম্পানি বলছে, তারা ২৪০ কোটি ডলারে কানাডার মেডিক্যাল ও আমোদ-প্রমোদের জন্য গাঁজা সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ক্রোনোস গ্রুপের ৪৫ শতাংশ শেয়ার কিনেছে।

এছাড়াও আরো ১৪০ কোটি ডলার ওয়ারেন্টি হিসেবে দিচ্ছে অ্যাল্ট্রিয়া। এই অর্থ দেয়া হলে টরোন্টোর এ কোম্পানি ক্রোনোস গ্রুপের ৫৫ শতাংশের মালিকানা পাবে।

এক বিবৃতিতে অ্যাল্ট্রিয়া গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হাওয়ার্ড উইলার্ড বলেছেন, বিশ্বজুড়ে উদীয়মান গাঁজা উৎপাদন খাতে আমাদের বিশেষ অংশীদার হিসেবে ক্রোনোস গ্রুপে এই বিনিয়োগ অ্যাল্ট্রিয়ার জন্য উৎপাদনের নতুন সুযোগ তৈরি করেছে।

‘আমরা বিশ্বাস করি, বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য ক্রোনোস গ্রুপের চমৎকার ব্যবস্থাপনা দলের প্রয়োজনীয় সক্ষমতা রয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ উৎপাদন সম্ভাবনা বুঝতে ক্রোনোস গ্রুপকে সহায়তার জন্য আমরা সামনের দিকে অগ্রসর হচ্ছি।’

গাঁজা উৎপাদনে নতুন করে চুক্তিতে পৌঁছানোর পর ক্রোনোস গ্রুপের শেয়ার দর শুক্রবার ৩০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে; যা এ যাবৎকালের মধ্যে সর্বোচ্চ।

চলতি বছরের অক্টোবরে চিকিৎসায় ওষুধ হিসেবে ও আমোদ-প্রমোদের জন্য নির্দিষ্ট মাত্রায় গাঁজা সেবনের বৈধতা দেয় কানাডা। বৈধতা দেয়ার পর দেশটির সরকার বলছে, গাঁজা বিক্রি থেকে বছরে চার'শ মিলিয়ন ডলার রাজস্ব অায় বাড়বে।

প্রাপ্ত বয়স্করা গাঁজা থেকে তৈরি তেল, বীজ, গাছ এবং শুকনো পাতা কিনতে পারবেন লাইসেন্স করা কোন উৎপাদক এবং বিক্রেতার কাছ থেকে। প্রকাশ্যে একজনের কাছে ৩০ গ্রামের বেশি গাঁজা থাকতে পারবে না।

একজন ব্যক্তি তার বাড়িতে চারটির বেশি গাঁজার গাছ লাগাতে পারবেন না। লাইসেন্স নেই এমন ডিলারের কাছ থেকে গাঁজা কেনা যাবে না। যদি কেউ অপ্রাপ্ত বয়স্ক কারো কাছে গাঁজা বিক্রি করে তবে তার ১৪ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে। তবে শাস্তির এই মাত্রা নিয়ে দেশটিতে বিতর্ক রয়েছে।

সূত্র : ডেইলি মেইল।

এসআইএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :