যুক্তরাষ্ট্র চরম ভুল করেছে : হাসান রুহানি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৪৬ পিএম, ০৯ এপ্রিল ২০১৯

সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের তালিকাভূক্তির একদিন পর ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি রক্ষক হিসেবে দেশটির এলিট বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর প্রশংসা করেছেন। ইরানের বিপ্লবী এই বাহিনীকে সন্ত্রাসী হিসেবে তালিকাভূক্ত করে যুক্তরাষ্ট্র চরম ভুল করেছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

এর আগে সোমবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনীকে বিদেশি সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভূক্ত করেন। যুক্তরাষ্ট্রের নজিরবিহীন এই ঘোষণায় মধ্যপ্রাচ্যে ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়েছে।

২০১৫ সালের মে মাস থেকেই ওয়াশিংটন এবং তেহরানের সম্পর্কে অবনতি ঘটে। ইরানের সঙ্গে ছয় বিশ্ব শক্তির স্বাক্ষরিত পারমাণবিক চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে ওই সময় বের করে নেয়ার ঘোষণা দেন ট্রাম্প। একই সঙ্গে দেশটির বিরুদ্ধে পুনরায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে ওয়াশিংটন।

আরও পড়ুন : ভারতে গো-মাংস বিক্রির দায়ে মারধরের পর খাওয়ানো হলো শুকরের মাংস

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক ভাষণে হাসান রুহানি বলেন, আমাদের দেশের মানুষ, ইসলামি বিপ্লবকে (১৯৭৯ সালের) রক্ষায় বিপ্লবী গার্ড বাহিনী তাদের জীবন উৎসর্গ করেছে...কিন্তু আজ যুক্তরাষ্ট্র তাদের ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছে আমাদের এই বাহিনীর বিরুদ্ধে, কালো তালিকাভূক্ত করেছে।

ট্রাম্পের ওই ঘোষণার পাল্টা হিসেবে ইরানও যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় কমান্ড বাহিনী সেন্টকমকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে। তেহরান বলছে, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে।

ইরানের কর্মকর্তা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, বিপ্লবী গার্ডের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ায় এই অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থ ঝুঁকিতে পড়বে। মধ্যপ্রাচ্যের সিরিয়া এবং লেবাননে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে প্রক্সি যুদ্ধে লিপ্ত রয়েছে ইরান।

রুহানি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের এই পদক্ষেপ ইরানীদের ঐক্যবদ্ধ করবে। একই সঙ্গে ইরানে এবং এই অঞ্চলে বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর জনপ্রিয় আরো বাড়বে...এই অঞ্চলে সন্ত্রাসীদেরকে যুক্তরাষ্ট্র হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। যখন ইরাক থেকে সিরিয়া পর্যন্ত সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে লড়াই করছে বিপ্লবী গার্ড বাহিনী।

ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনী কমান্ডার বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন অঞ্চলে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাঁটি এবং বিমানবাহী যুদ্ধজাহাজ ইরানি ক্ষেপণাস্ত্রের আওতায় রয়েছে। এমনকি ইরানের তেল রফতানিতে কোনো ধরনের বাধা তৈরি করা হলে হরমুজ প্রণালী হয়ে তেলের যেসব জাহাজ যুক্তরাষ্ট্রে যায়; সেসব জাহাজের চলাচল বন্ধ করে দেয়ার হুমকিও দিয়েছে তেহরান।

আরও পড়ুন : রাখাইনে হামলায় মিয়ানমার সেনাবাহিনীর একটি স্কোয়াডের সব সদস্য নিহত

বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নেয়া পদক্ষেপকে মঙ্গলবার স্বাগত জানিয়েছে ইরানের আঞ্চলিক অপর প্রতিদ্বন্দ্বী সৌদি আরব। বছরের পর বছর ধরে সিরিয়া এবং ইয়েমেনে প্রক্সি যুদ্ধে লিপ্ত রয়েছে সুন্নি অধ্যুষিত সৌদি আরব ও শিয়া সংখ্যাগরিষ্ঠ ইরান। রিয়াদ বলছে, সৌদি আরব ও মধ্যপ্রাচ্যের অনেক দেশের অভ্যন্তরীণ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করছে তেহরান।

ইউরোপীয় ইউনিয়নকে হাসান রুহানি বলেছেন, আমরা ধৈর্য ধারণ করেছি এবং আমাদের ধৈর্যধারণ অব্যাহত থাকবে...কিন্তু আমাদের ধৈর্যের সীমা রয়েছে...প্রতিশ্রুতি রক্ষা করুন এবং প্রতিশ্রুতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল হন।

সূত্র : রয়টার্স, আলজাজিরা।

এসআইএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :