ভারতে ভারী বৃষ্টিপাতে ২৮ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:১৭ এএম, ১৯ আগস্ট ২০১৯

ভারতের উত্তরাঞ্চলে রোববার ভারী বৃষ্টিপাতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখন্ড এবং পাঞ্জাবে এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে আরও ২২ জন।

যমুনা এবং অন্যান্য নদীর পানি বিপৎসীমার কাছাকাছি হওয়ায় দিল্লি, হরিয়ানা, পাঞ্জাব এবং উত্তর প্রদেশে বন্যার সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

অপরদিকে, ভারতের দক্ষিণাঞ্চলেও বন্যা পরিস্থিতিতে বিপাকে রয়েছে স্থানীয় বাসিন্দারা। ভারী বৃষ্টিপাত ও বন্যায় কেরালায় এখন পর্যন্ত ১২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। সেখানে নতুন করে আরও কয়েকজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

কর্নাটাকেও বন্যায় মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। সেখানে এখন পর্যন্ত ৭৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে আরও ১০ জন। অপরদিকে হিমাচল প্রদেশে দুই নেপালি নাগরিকসহ কমপক্ষে ২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। ভারী বৃষ্টিপাতে সৃষ্ট বিভিন্ন দুর্ঘটনায় আরও নয়জন আহত হয়েছেন।

বৃষ্টিপাত ও বন্যার কারণে কাকলা এবং শিমলাসহ বিভিন্ন স্থানে ট্রেন সেবা ব্যহত হচ্ছে। শিমলা, সোলান, কুল্লু এবং বিলাসপুর জেলার সব স্কুল-কলেজ সোমবার বন্ধ থাকবে। অপরদিকে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে সৃষ্ট বিভিন্ন দুর্ঘটনায় উত্তরাখন্ডে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে আরও ২২ জন।

আকস্মিক বন্যায় উত্তরকাশি জেলার মোরিতে বেশ কিছু গ্রাম প্লাবিত হয়েছে এবং বাড়ি-ঘর বন্যার পানিতে ভেসে গেছে। অপরদিকে, ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে সৃষ্ট ভূমিধসে বাড়ির নিচে চাপা পড়ে পাঞ্জাবে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

সরকারি এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, কেরালায় গত ৮ আগস্ট থেকে ভারী বৃষ্টিপাত ও বন্যায় ১২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। ২৯৬টি আশ্রয় কেন্দ্রে রয়েছেন প্রায় ৪৭ হাজার মানুষ।

টিটিএন/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]