তুর্কি জাহাজে জলদস্যুদের হামলায় নিহত ১, অপহৃত ১৫

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:২৫ পিএম, ২৪ জানুয়ারি ২০২১

পশ্চিম আফ্রিকার উপকূলে তুরস্কের একটি কার্গো জাহাজে হামলা চালিয়ে জলদস্যুরা ১৫ নাবিককে অপহরণ করেছে এবং একজনকে হত্যা করেছে। তুরস্কের সেনাবাহিনী রোববার জানিয়েছে, তারা উদ্ধার অভিযান চালানোর পরিকল্পনা করছে। খবর আল জাজিরার।

তুরস্কের গণমাধ্যম জানিয়েছে, এমভি মোজার্ত নামের ওই তুর্কি জাহাজটি নাইজেরিয়ার লাগোস থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার রাজধানী কেপ টাউনে যাচ্ছিল। পথে নাইজেরিয়ার জলদস্যুরা জাহাজে হামলা চালায়।

গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, জাহাজের ১৯ জনের মধ্যে ১৫ জনকে অপহরণ করা হয়েছে। নাইজেরিয়া এবং গিনি উপকূলে জলদস্যুদের হামলা অনেকটা সাধারণ ব্যাপার। এসব জলদস্যু জাহাজে হামলা চালিয়ে নাবিকদেরকে অপহরণ করে এবং মুক্তিপণের বিনিময়ে তাদের ছেড়ে দেয়।

তুরস্কের গণমাধ্যম জানিয়েছে, নিহত নাবিকের নাম ফারমান ইসমায়িলোভ। তিনি আজারবাইজানের নাগরিক। ওই জাহাজের অন্যান্য নাবিকরা তুরস্কের নাগরিক। ওই জাহাজটি এখন গেবনের জেনটিল বন্দরের দিকে যাচ্ছে।

এক টুইট বার্তায় তুর্কি প্রেসিডেন্টের কার্যালয় থেকে এক টুইট বার্তায় জানানো হয়েছে যে, জাহাজটির শীর্ষ কর্মকর্তা ফুরকান ইয়ারিনের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান দু'বার কথা বলেছেন। অপহৃত নাবিকদের উদ্ধারে জরুরি নির্দেশনা জারি করেছেন তিনি।

তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগ্লু আজারবাইজানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি আজারবাইজানের নিহত নাবিকের বিষয়ে শোক প্রকাশ করেছেন। জাহাজটি মোজার্ত বন্দরে পৌঁছানোর পর পরই ওই নাবিকের মরদেহ আজারবাইজানে স্থানান্তর করা হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

টিটিএন/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]