গ্রিসে শক্তিশালী ভূমিকম্পের আঘাত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:০৪ পিএম, ০৩ মার্চ ২০২১

গ্রিসের মধ্যাঞ্চলে ছয় মাত্রারও বেশি শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। কম্পনের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে, এর রেশ অনুভূত হয়েছে পার্শ্ববর্তী দেশ আলবেনিয়া, উত্তর মেসিডোনিয়া, কসোভো এবং মন্টেনিগ্রোতেও।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় বুধবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে গ্রিসে শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে এতে হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতির কোনও খবর পাওয়া যায়নি।

ইউরোপীয়-ভূমধ্যসাগরীয় ভূমিকম্প কেন্দ্রের তথ্যমতে, ভূমিকম্পটির কেন্দ্র ছিল লারিসা শহর থেকে ২২ কিলোমিটার পশ্চিম-উত্তরপশ্চিমে। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৬ দশমিক ২।

তবে যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) এবং বৈশ্বিক ভূকম্পন পর্যবেক্ষক জিওফনের হিসাবে, গ্রিসে আঘাত হানা ভূমিকম্পের মাত্রা ৬ দশমিক ৩।

আবার অ্যারিস্টটল ইউনিভার্সিটি অব থেসালোনিকির ভূকম্পন ইনস্টিটিউট বলছে, কম্পনের মাত্রা ছিল মাত্র ছয়।

ভূমিকম্পের পরপরই বিভিন্ন সংস্থার হিসাবে কম্পনের ভিন্ন ভিন্ন মাত্রা পাওয়ার ঘটনা অস্বাভাবিক কিছু নয়।

এদিন গ্রিসে ভূমিকম্প-পরবর্তী প্রতিক্রিয়ার কম্পনও (আফটারশক) ছিল শক্তিশালী। প্রাথমিকভাবে এর মাত্রা ৪ দশমিক ৯ ধরা হচ্ছে।

বিশ্বের মধ্যে অত্যন্ত ভূমিকম্পপ্রবণ এলাকায় অবস্থিত গ্রিস। তবে সেখানকার বেশিরভাগ ভূমিকম্পেই ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহতের ঘটনা খুব একটা দেখা যায় না।

গত অক্টোবরে গ্রিসের সামোস দ্বীপ এবং নিকটবর্তী তুরস্ক উপকূলে আঘাত হেনেছিল শক্তিশালী একটি ভূমিকম্প। এতে সামোসে দুইজন মারা গেলেও তুরস্কে প্রাণহানি হয়েছিল অন্তত ৭৫ জনের।

কেএএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]