৩ বার ৩ দলের প্রার্থী হয়ে ভোটে জিতে নজির গড়েছেন তিনি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:০২ এএম, ০৮ মে ২০২১
ছবি : সংগৃহীত

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভার ইতিহাসে অনন্য নজির গড়লেন নাটাবাড়ির বিজেপি বিধায়ক মিহির গোস্বামী। শুক্রবার (৭ মে) বিধানসভায় শপথপাঠ করেছেন তিনি। এ নিয়ে তিনবার ৩টি দলের হয়ে বিধানসভার সদস্য হলেন মিহির।

৯০’র দশকে যুব কংগ্রেস নেত্রী মমতা ব্যানার্জির অনুসারী বলেই মিহিরের পরিচিতি ছিল উত্তরবঙ্গের রাজনীতিতে। ১৯৯৬ সালে কোচবিহার উত্তর আসনে কংগ্রেসের প্রার্থী হন তিনি। প্রথমবার দাঁড়িয়ে জয়ী হন তিনি। সেবার কংগ্রেসের টিকিটে তার বিধানসভায় অভিষেক হয়। কিন্তু ২০০১ এবং ২০০৬-এ ওই কেন্দ্রই তিনি ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা দীপক সরকারের কাছে পরাজিত হন।

২০১৬ সালে কোচবিহার দক্ষিণ আসনে তৃণমূলের প্রার্থী হন মিহির। ফরওয়ার্ড ব্লক প্রার্থী দেবাশিস বণিককে হারিয়ে ১৫ বছর পর বিধানসভায় প্রত্যাবর্তন হয় তার। কিন্তু ধীরে ধীরে দলের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি হতে শুরু করে।

২০২০ সালের শেষের দিকে তৃণমূল ছেড়ে যোগ দেন বিজেপিতে। নীলবাড়ির লড়াইয়ে বিজেপির প্রার্থী তালিকায় দেখা যায়, কোচবিহার দক্ষিণের বদলে নাটাবাড়ি কেন্দ্রে রাজ্যের মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষের বিরুদ্ধে তাকে প্রার্থী করা হয়েছে।

ফল প্রকাশের পর দেখা যায়, বিধানসভা ভোটে ভরাডুবি হয়েছে বিজেপির। হাতে গোনা দু-চারজন ছাড়া তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়া দলবদল করা প্রায় সব নেতাই হেরেছেন। কিন্তু উত্তরবঙ্গে নতুন আসনে দাঁড়িয়েও জয় পেয়েছেন মিহির। তিনি তাঁরপ্রতিদ্বন্দ্বি তৃণমূল প্রার্থীকে ২৩ হাজারেরও বেশি ভোটে হারিয়ে বিজেপির বিধায়ক হয়েছেন। শুক্রবার তিনি শপথ নেয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তৈরি হল নতুন নজির।

তিনবার দলবদল করেও বিধানসভার সদস্য হওয়ার নজির গড়ার প্রশ্নে স্মিত হেসেছেন নাটাবাড়ির নবনির্বাচিত বিধায়ক। তাঁর কথায়, ‘আমি ঈশ্বরে বিশ্বাসী। তিনি যখন যে পথে নিয়ে গিয়েছেন, সেই পথেই চলেছি। আমার এমন পথচলার কথা একমাত্র ঈশ্বরই জানেন।’

এএএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]