বাংলাদেশের জন্য ট্রানজিট সুবিধা চালু করল আমিরাত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৫৯ পিএম, ০৪ আগস্ট ২০২১
দুবাই বিমানবন্দরের টার্মিনাল ৩ (ফাইল ছবি)

ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কাসহ বেশ কয়েকটি দেশের জন্য দরজা অনেকটাই উন্মুক্ত করল সংযুক্ত আরব আমিরাত। এসব দেশ থেকে নির্ধারিত ক্যাটাগরির ভ্রমণকারীরা আমিরাতে প্রবেশ করতে অথবা মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিকে ট্রানজিট হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। তবে বাংলাদেশ, আফগানিস্তানের মতো কিছু দেশের জন্য আপাতত শুধু ট্রানজিট সুবিধা চালু করছে আমিরাত।

বুধবার গালফ বিজনেসের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুটি রাষ্ট্রায়াত্ত বিমান পরিবহন সংস্থা এমিরেটস ও ইতিহাদ এয়ারওয়েজ তাদের নিজ নিজ ওয়েবসাইটে পূর্বে ভ্রমণ স্থগিতঘোষিত কিছু দেশ থেকে যাত্রী পরিবহন সংক্রান্ত নীতিমালা হালনাগাদ করেছে।

দুবাই-ভিত্তিক সংস্থা এমিরেটস জানিয়েছে, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল (ফ্লাইদুবাই পরিচালিত), নাইজেরিয়া ও উগান্ডা থেকে যোগ্য ভ্রমণকারীরা আমিরাতে যেতে অথবা ট্রানজিট নিতে পারবেন। আগামী ৫ আগস্ট থেকে এই সুবিধা পাবেন তারা।

তবে বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, ভিয়েতনাম ও জাম্বিয়ার যোগ্য ভ্রমণকারীরা কেবল ট্রানজিট রুট হিসেবে আমিরাত প্রবেশ করতে পারবেন।

অন্যদিকে, আবুধাবি-ভিত্তিক এয়ারলাইন ইতিহাদ জানিয়েছে, আমিরাত সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক আগামী ১৫ আগস্ট পর্যন্ত ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা থেকে তাদের সকল ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছিল। তবে আগামী ৫ আগস্ট থেকে কিছু বিধিনিষেধ শিথিল করা হচ্ছে।

সংস্থাটি বলেছে, আমিরাত প্রবেশ ও ট্রানজিটের যোগ্য অতিথিদের জন্য আমরা যত দ্রুত সম্ভব ফ্লাইট চালুর চেষ্টা করছি। এছাড়া বাংলাদেশ থেকে ইতোপূর্বে বাতিল হওয়া ফ্লাইটগুলো কেবল ট্রানজিট যাত্রীদের জন্য ফের চালু করতে কাজ চলছে।

ইতিহাদ জানিয়েছে, ফ্লাইট বাতিলের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত যাত্রীদের বিষয়টি সরাসরি জানিয়ে দেয়া হচ্ছে। ফ্লাইট চালুর পর যোগ্য যাত্রীরা তাদের শিডিউল রিবুক করতে পারবেন।

গত মঙ্গলবার আমিরাত কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তারা আগামী ৫ আগস্ট থেকে ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, নাইজেরিয়া ও উগান্ডার নির্ধারিত ক্যাটাগরির ভ্রমণকারীদের প্রবেশ-অনুমতি দেবে।

যাদের আমিরাতে বসবাসের বৈধ অনুমতি রয়েছে, যারা দুই ডোজ টিকা নিয়েছেন এবং দ্বিতীয় ডোজ নেয়া হয়েছে কমপক্ষে ১৪ দিন আগে, যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে টিকাগ্রহণের সনদ রয়েছে- এধরনের ব্যক্তিরা আমিরাত প্রবেশ করতে পারবেন। আমিরাতে কর্মরত সকল মেডিক্যাল কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষক টিকা নেয়া থাক বা না থাক দেশটিতে ফিরতে পারবেন।

এছাড়া দেশত্যাগের আগে সর্বোচ্চ ৭২ ঘণ্টার মধ্যে করোনা টেস্টের ফল নেগেটিভ আসা ব্যক্তিরা বিশ্বের যেকোনো প্রান্ত থেকে আমিরাতের ট্রানজিট ব্যবহার করতে পারবেন।

কেএএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]