পর্যটকদের টানতে দার্জিলিংয়ে শুরু হচ্ছে ঘুম ফেস্টিভ্যাল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৫৯ এএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

পশ্চিমবঙ্গ সংবাদদাতা

উত্তরবঙ্গ ও পাহাড়ের সৌন্দর্যের প্রতি স্থানীয় ও বিদেশি পর্যটকদের আকর্ষণ বাড়াতে নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে দার্জিলিং হিমালয়ান রেলওয়ে (ডিএইচআর)। তারা জয় রাইড পরিষেবায় কোচের সংখ্যা বাড়ানোর পাশাপাশি নভেম্বরের শুরুতে ঘুম ফেস্টিভ্যাল সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

উত্তরবঙ্গ ও পাহাড় সব সময় পর্যটকদের কাছে বিশেষ আকর্ষণের জায়গা। তার উপরে রয়েছে ঐতিহাসিক দার্জিলিং টয় ট্রেন। এই পরিষেবা সব সময়ই নজর কাড়ে পর্যটকদের কাছে। তাই এ বছর পূজার আগে পর্যটকদের জন্য বিভিন্ন জয় রাইড পরিষেবা শুরু করেছে ডিএইচআর। এতে পর্যটকদের ভালো সাড়া পাওয়া গেছে। পর্যটকদের সুবিধার্থে এবার প্রতিটি জয় রাইডে বাড়ানো হচ্ছে কোচের সংখ্যা। এর সঙ্গে বাড়ছে ট্রেনও।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলনে দার্জিলিং হিমালয়ান রেলওয়ের এডিআরএম সঞ্জয় চিলওয়ারওয়ার এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, টয় ট্রেনের জয় রাইডের তিনটি স্টিম ও তিনটি ডিজেল ইঞ্জিনের পরিবর্তে এবার চারটি স্টিম ও চারটি ডিজেল ইঞ্জিন চালু করা হচ্ছে। এছাড়াও পর্যটকদের আকর্ষণ বাড়াতে শিগগিরই শুরু হবে ঘুম ফেস্টিভ্যাল। আগামী ১৩ নভেম্বর থেকে শুরু হয়ে এ ফেস্টিভ্যাল চলবে ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত। পাহাড়ে এ ধরনের অনুষ্ঠান এই প্রথম। এর মাধ্যমে স্থানীয় বিভিন্ন সংস্কৃতিকে তুলে ধরা হবে।

তিনি আরও বলেন, পর্যটকদের সুবিধার্থে আগামী ১ অক্টোবর থেকে দার্জিলিং থেকে নিউজলপাইগুড়িগামী টয় ট্রেনের সময় পরিবর্তন করা হচ্ছে। আগে ট্রেনটি দার্জিলিং স্টেশন থেকে সকাল ৮টায় রওনা দিলেও পরিবর্তন করে ৯টা করা হয়েছে। তিনি সময় পরিবর্তনের কারণ হিসেবে পর্যটকদের সমস্যার কথা তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, এত সকালে অনেক পর্যটকের জন্য ট্রেন ধরা মুশকিল হয়ে পড়ে। এ কারণে টিকিটও সেভাবে বিক্রি হচ্ছে না। এজন্য সময় পরিবর্তন করা হয়েছে। এছাড়া জয় রাইডে বিপুল সাড়া ফেলায় যাত্রী বাড়াতে প্রতি রাইডে কোচের সংখ্যাও বাড়ানো হয়েছে।

পর্যটনের প্রচার করাই তাদের লক্ষ্য উল্লেখ করে দার্জিলিং রেলওয়ের এই কর্মকর্তা বলেন, ঘুম ফেস্টিভ্যালের মাধ্যমে পর্যটকদের মাঝে স্থানীয় সংস্কৃতি তুলে ধরা হবে। থাকবে নাচ-গানের অনুষ্ঠান। বিভিন্ন ব্যান্ডের অনুষ্ঠানসহ চা বাগান ট্যুর, মাউন্টেইন বাইকিং এমনকি ট্রেকাথন। পর্যটকরা এসব উপভোগ করতে পারবেন।

এআরএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]