ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দেবে ফ্রান্স


প্রকাশিত: ০৪:৪৮ পিএম, ৩০ জানুয়ারি ২০১৬
ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দেবে ফ্রান্স

ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাত নিরসনে ফ্রান্স নতুন করে উদ্যোগ নিয়েছে। তবে ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী লরা ফেবিয়াস সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, এবারের এ শান্তি প্রক্রিয়া ব্যর্থ হলে ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দেবে ফ্রান্স। শুক্রবার বিদেশি কূটনীতিকদের এক অনুষ্ঠানে লরা ফেবিয়াস এসব কথা বলেন। খবর আল জাজিরার।

তিনি বলেন, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য হিসেবে ফ্রান্সের কিছু দায়িত্ব রয়েছে। সে কারণে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন দ্বন্দ্ব নিরসনের জন্য প্যারিস প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে। দুই রাষ্ট্রভিত্তিক সমাধানকে আমরা বিভক্ত হতে দিতে পারি না। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য ও শান্তিকামী দেশ হিসেবে এটি আমাদের দায়িত্ব।

তিনি জানান, আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে ফিলিস্তিন ইস্যুতে একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা করছে ফ্রান্স। যেখানে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের কর্মকর্তাদের পাশাপাশি আমেরিকা, ইউরোপ ও কয়েকটি আরব দেশের নেতারা আলোচনায় অংশ নেয়ার কথা রয়েছে। এ প্রচেষ্টা যদি ব্যর্থ হয় তাহলে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দেয়া হবে।

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের মুখপাত্র নাবিল আবু রুদাইনাহ ফ্রান্সের এ বক্তব্যকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন। এজন্য ফ্রান্সকে স্বাগত জানিয়ে তিনি বলেন, ফ্রান্সের স্বীকৃতি আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

এদিকে সম্প্রতি ফিলিস্তিন ইস্যুতে ইসরায়েলের সমালোচনা করেন জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন। এনিয়ে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বান কি মুনের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কাজে উসকানি দেয়ার অভিযোগ অানেন। গাজা উপত্যকা ও জেরুজালেমের আল আকসা মসজিদে প্রবেশে কড়াকড়ি আরোপের প্রতিবাদে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে গত অক্টোবরে। সেই থেকে এখন পর্যন্ত ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর হাতে ১৬৫ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। এছাড়া ফিলিস্তিনিদের হামলায় অন্তত ২৫ ইসরায়েলিও প্রাণ হারিয়েছে।

এসআইএস