উই হোক বাংলাদেশের নারীদের সাহসের নাম

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:০৬ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০২০

নারী উদ্যোক্তাদের জনপ্রিয় প্লাটফর্ম ‘উইমেন অ্যান্ড ই-কমার্স ফোরামের (উই)’ প্রেসিডেন্ট নাসিমা আক্তার নিশা। আগামী ২৪ ও ২৫ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে উইমেন অ্যান্ড ই-কমার্স এন্টারপ্রিনিয়রশীপ সামিট। সামিটে কী কী হতে যাচ্ছে এবং উই নিয়ে তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা জানান জাগো নিউজকে। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন বেনজির আবরার—

আপনার প্রতিষ্ঠিত ফেসবুক গ্রুপে এখন এক মিলিয়ন সদস্য। এ বিশাল অর্জন সম্পর্কে কিছু বলুন—
নাসিমা আক্তার নিশা: নারী উদ্যোক্তাদের নিয়ে কাজ করার স্বপ্ন থেকেই আমার এ উদ্যোগ নেওয়া। আমরা ইক্যাবের সাপোর্টেড উদ্যোক্তা প্লাটফর্ম। আমি নারী উদ্যোক্তা হওয়ায় বেশ ভালোভাবে পৌঁছে গেছি সারাদেশে। যখন আমাদের অভিভাবক হিসেবে বাংলাদেশের আইটি জগতের কিংবদন্তি রাজিব আহমেদ দায়িত্ব নিয়ে আমাকে সাহস দিলেন; ঠিক তখন থেকে আমাদের গ্রুপ সবার পছন্দের এবং জনপ্রিয় হতে লাগলো। গত নয় মাসেই আমরা অনেকগুলো ধাপ পেরিয়ে সম্প্রতি এক মিলিয়ন সদস্যসংখ্যা পূর্ণ করলাম। আমাদের প্রত্যেকটি অর্জনে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের অভিভাবক জুনায়েদ আহমেদ পলক আমাদের সার্বক্ষণিক সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। সামিটে আমাদের সহ-আয়োজক প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরাম।

jagonews24

উই সামিট কী এবং কেন?
নাসিমা আক্তার নিশা: আপনারা জেনে থাকবেন, আমরা প্রতিনিয়ত নারী উদ্যোক্তাদের স্কিল ডেভেলপমেন্ট এবং তাদের নানা ধরনের সরকারি-বেসরকারি জায়গায় যুক্ত করতে কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের গ্রুপের কল্যাণে দেশের প্রান্তিক নারীরা নানা ধরনের প্রশিক্ষণ পেয়ে নিজেদের অর্থনৈতিকভাবে আরও স্বাবলম্বী করতে পেরেছেন।

উই সামিটের মূল পরিকল্পনা হচ্ছে- একদম বিনা মূল্যে দেশ এবং বিদেশের গুণিজনদের উদ্যোক্তাদের সামনে হাজির করা, যার মাধ্যমে দেশীয় পণ্যের এক বড় প্রচারণা হবে। ২৪ অক্টোবর উদ্বোধনী সেশনে প্রধান অতিথি থাকবেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমীন চৌধুরী। অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করবেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের মন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক।

jagonews24

উদ্বোধনী আয়োজনে অতিথি হিসেবে আরও থাকবেন এসবি টেক ভেঞ্চারসের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী সোনিয়া বশির কবির, বাংলাদেশে নবনিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত বিক্রম কে দোরাইস্বামী, ইউকেতে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত সৈয়দা মুনিয়া তাসনীম।

দু’দিনের সামিটে আর কী কী সেশন থাকবে?
নাসিমা আক্তার নিশা: উদ্বোধনের দিনই বাংলাদেশের নারীদের সামগ্রিক অবস্থা ও ই-কমার্স সেক্টর নিয়ে রাজিব আহমেদের সেশন। এরপর দেশীয় পণ্য নিয়ে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন চার জন কথা বলবেন দেশীয় পণ্যের ব্রান্ডিং এবং এ ইন্ডাস্ট্রির সামগ্রিক অবস্থা। এরপর দেশীয় পণ্যের সাপ্লাই চেইন ম্যানেজমেন্ট নিয়ে কথা হবে। হবে নারী উদ্যোক্তাদের ই-কমার্সের লিগ্যাল ইস্যুগুলো নিয়ে সেশন।

এ ছাড়াও ই-কমার্স ও উইমেন এম্পাওয়ারমেন্ট নিয়ে রাতের সেশনে যুক্ত হবেন ইক্যাব প্রেসিডেন্ট শমী কায়সার ও মেহের আফরোজ চুমকি এমপি। ২য় দিনের সেশনেও পণ্যের ডেলিভারি, ডিজিটাল পেমেন্ট, পলিসি সাপোর্ট, ব্যাংকিং ইস্যুতে নানা ধরনের গুরুত্বপূর্ণ সেশন থাকবে।

jagonews24

সমাপনী সেশনে মন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক আবারও যুক্ত হবেন। আমরা দশ জন নারী উদ্যোক্তাকে সম্মাননা জানাবো। যারা উইয়ের মাধ্যমে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে কাজ করে যাচ্ছেন।

উই সামিট উপলক্ষে আপনার গ্রুপে কেমন উদ্দীপনা দেখতে পাচ্ছেন?
নাসিমা আক্তার নিশা: আমাদের সাথে কাজ করা উদ্যোক্তারা মুখিয়ে আছেন আয়োজনটির জন্য। কারণ আয়োজনটিতে এমন কিছু বিষয় আমরা তুলে আনার চেষ্টা করবো, যেগুলো উদ্যোক্তাদের অনেক দিনের সমস্যা, তাদের ইন্ডাস্ট্রির গুণিজনদের সাথেও পরিচিত হওয়ার সুযোগ এটি।

এসইউ/এএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]