ব্যারিস্টার মইনুল ও জাফর উল্লার জামিন স্থগিত করেনি চেম্বার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:০৭ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০১৮

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন এবং গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন স্থগিত করেননি আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদন শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার আপিল বিভাগের বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর চেম্বার জজ আদালত এই আদেশ দেন।

তবে তাদের জামিন স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদনের ওপর আগামী ২৫ অক্টোবর বৃহস্পতিবার আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

গত ১৬ অক্টোবর টকশোতে মাসুদা ভাট্টিকে নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করেন ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন। এ ঘটনায় ২১ অক্টোবর ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে মাসুদা ভাট্টি এবং জামালপুর আদালতে যুব মহিলা লীগের জামালপুর শাখার আহ্বায়ক ফারজানা ইয়াসমীন লিটা ২০ হাজার কোটি টাকার মানহানির অভিযোগে মামলা করেন। এ মামলায় আদালত পৃথকভাবে মইনুল ইসলামের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। এই আদেশের পর ওইদিনই হাইকোর্টে হাজির হয়ে জামিন নেন মইনুল হোসেন। এই জামিন স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করেছে।

এদিকে মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন স্থানে আরও কয়েকটি মামলা হয়েছে। রংপুরে দায়ের করা মামলায় সোমবার পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। মঙ্গলবার আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

জমি দখল, চাঁদাবাজির অভিযোগে জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে আশুলিয়া থানায় পৃথক তিনটি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে জমি দখল ও এক কোটি টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগে গত ১৫ অক্টোবর মানিকগঞ্জ জেলার হরিরামপুরের মোহাম্মদ আলী এবং এক কোটি টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগে ১৯ অক্টোবর আশুলিয়ার ঘোড়াপীর মাজার এলাকার হাসান ইমাম বাদী হয়ে জাফরুল্লাহ চৌধুরীসহ বেশ কয়েকজনকে আসামি করে আশুলিয়া থানায় পৃথক দুটি মামলা করেন। এ দুই মামলায় জাফরুল্লাহ চৌধুরী ২১ অক্টোবর হাইকোর্ট থেকে জামিন নেন। এদিনই আরেকটি মামলা করেন সেলিম আহমেদ। এ মামলায়ও ২২ অক্টোবর হাইকোর্টে হাজির হয়ে জামিন নেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী। এর মধ্যে একটি মামলায় জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছে রাষ্ট্রপক্ষ।

এফএইচ/জেএইচ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :