‘ফরমায়েশি আদেশে ব্যারিস্টার মইনুলকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:০১ এএম, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের জামিন বাতিল করে তাকে কারাগারে পাঠানোর প্রতিবাদে সুপ্রিম কোর্টে প্রতিবাদ সভা করেছে আইনজীবী ঐক্যফ্রন্টের নেতারা।

বুধবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতির কক্ষের সামনে দাঁড়িয়ে সমিতির সাবেক সভাপতি জয়নুল আবেদীন ও বর্তমান সম্পাদক এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকনের নেতৃত্বে শতাধিক আইনজীবী এ প্রতিবাদ সভায় অংশ নেন।

অবিলম্বে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে মুক্তি দেয়ার দাবি করে তারা বলেন, ফরমায়েশি আদেশের কারণে মইনুল হোসেনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। জামিনযোগ্য মামলায় তার জামিন বাতিল করা অত্যন্ত লজ্জা ও দুঃখজনক।

প্রতিবাদ সভায় আইনজীবী জগলুল হায়দার আফ্রিক, বিকল্পধারা মহাসচিব শাহ আহম্মেদ বাদল, গণতন্ত্র ও খালেদা জিয়া মুক্তি আইনজীবী আন্দোলনের মহাসচিব এবিএম রফিকুল হক তালুকদার রাজা, আবেদ রাজা, ড. এম এম ওয়াছেল উদ্দিন বাবু, সুপ্রিম কোর্ট বারের সহ-সম্পাদক শরীফ ইউ আহমেদ, আনিছুর রহমান খান, আইয়ুব আলী আশ্রাফী, নাছির উদ্দিন খান সম্রাট, মির্জা আল মাহমুদ, ব্যারিস্টার ফজলুর রহমান জুয়েল প্রমুখ।

জয়নুল আবেদীন বলেন, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি। আইনের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়ে তিনি সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন। জামিনযোগ্য মামলায় তাকে জামিন না দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ফরমায়েশি আদেশের কারণে এটি করা হয়েছে।

তিনি প্রধান বিচারপতির প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ফরমায়েশি আদেশের বিরুদ্ধে লাগাম ধরুন। তা না হলে একদিন আপনাকেও বিদায় নিতে হবে। তিনি ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে অবিলম্বে মুক্তি দেয়ার দাবিতে আজ বৃহস্পতিবার একই স্থানে আইনজীবীদের প্রতিবাদ সভা আহ্বান করেন।

মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে মইনুল হোসেনের জামিন বাতিল করে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আইনজীবীদের জন্য এটা লজ্জার ব্যাপার। তিনি বলেন, নিম্ন আদালত সরকারের নির্দেশে আর উচ্চ আদালত অ্যাটর্নি জেনারেলের নির্দেশে চলছে। তিনি অবিলম্বে মইনুল হোসেনের জামিন বাতিলকারী ম্যাজিস্ট্রেটের বিচারিক ক্ষমতা কেড়ে নেয়ার দাবি জানান।

তিনি আরও বলেন, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে কারাগারে পাঠানোর প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট বারের বর্তমান ও সাবেক সভাপতিদের নিয়ে সভা করা হবে। বারের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে প্রধান বিচারপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করে আইনজীবীদের অবস্থান তুলে ধরা হবে। এছাড়া বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১টায় সংবাদ সম্মেলন করা হবে।

এফএইচ/বিএ