হুমায়ূন আহমেদ সাহিত্য পুরস্কার পেলেন রিজিয়া ও ফাতিমা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:০৫ পিএম, ১২ নভেম্বর ২০১৮

‘এক্সিম ব্যাংক-অন্যদিন হুমায়ূন আহমেদ সাহিত্য পুরস্কার ২০১৮’ পেলেন রিজিয়া রহমান এবং ফাতিমা রুমি। সাহিত্যে সামগ্রিক অবদানের জন্য রিজিয়া রহমানকে এবং নবীন সাহিত্যশ্রেণিতে ফাতিমা রুমিকে এ পুরস্কার দেয়া হয়।

সোমবার বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে দুই লেখকের হাতে পুরস্কার তুলে দেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়কমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, এক্সিম ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে জানানো হয় আপন দ্যুতিতে উদ্ভাসিত প্রয়াত কিংবদন্তি কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমদ এর স্মরণে এবং এদেশের নবীন-প্রবীণ কথাসহিত্যিকদের শিল্পসৃষ্টিতে প্রেরণা যোগাতে ২০১৫ সাল থেকে প্রবর্তিত হয় ‘এক্সিম ব্যাংক-অন্যদিন হুমায়ূন আহমেদ সাহিত্য পুরস্কার’। দু’টি ক্যাটাগরিতে এ পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে।

বিশেষ কোনো শিল্প সৃষ্টির মাধ্যমে কথাসাহিত্যে অবদান রাখার জন্য অথবা কথাসাহিত্যে সার্বিক অবদানের জন্য একটি পুরস্কার। যার অর্থমূল্য ৫ লাখ টাকা। অনূর্ধ্ব চল্লিশ বছর বয়সী লেখককে পূর্ববর্তী বছর প্রকাশিত তার নিদির্ষ্ট গ্রহ্নের জন্য আরেকটি পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। এর অর্থমূল্য ১ লাখ টাকা। কথাসাহিত্যে সার্বিক অবদানের জন্য পুরস্কার পেয়েছেন রিজিয়া রহমান এবং অনূর্ধ্ব চল্লিশ বছর বয়সী লেখককের পুরস্কার পেয়েছেন ফাতিমা রুমি।

অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী বলেন, অনেক সময় অনেক পুরস্কার দেয়া হয়। কিন্তু যাকে দেয়া হয় তিনি তখন বেঁচেই থাকেন না। কিন্তু আজ যদের পুরস্কৃত করা হচ্ছে তারা দুজনই স্বশরীরে উপস্থিত রয়েছেন। একজন বয়সে বৃদ্ধ হলেও লেখনিতে তরুণী। অন্যজন সবদিক দিয়েই তরুণী। তিনি পুরস্কার প্রাপ্তদের অভিনন্দন জানান।

হুমায়ূন আহমেদের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘তিনি যখন মারা যান তখন মনে হয়েছিল বড্ড দ্রুত আমাদের ছেড়ে চলে যাচ্ছেন। তবে এখনো তিনি তার লেখনির মাধ্যমে আমাদের মধ্যে বেঁচে রয়েছেন।’

তিনি বলেন, হুমায়ূন আহমেদ বাংলা সাহিত্যে একটা বিরাট পাঠক তৈরি করে গেছেন। তার সুফল আমরা এখনো ভোগ করছি। তিনি শুধু ভালো লেখকই ছিলেন না। তিনি ছিলেন একজন আধুনিক লেখকও।

এমইউএইচ/এসএইচএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :