সৈকতের ঢেউ ও অন্যান্য কবিতা

সাহিত্য ডেস্ক
সাহিত্য ডেস্ক সাহিত্য ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:২৬ পিএম, ১২ জানুয়ারি ২০২২

আবু আফজাল সালেহ

সৈকতের ঢেউ

ঢেউয়ের উথালপাথাল
নোনাগন্ধ, রেশমি-স্পর্শ ফেনিল
পায়ে আছড়ে পড়ছে
আমার কষ্টগুলো যেন কেড়ে নিচ্ছে।

শীতল সমুদ্রের বাতাস চারপাশে ঘূর্ণায়মান
ভালোবাসায় জড়িয়ে নেয়
শরীরের ব্যথাগুলোকে হারিয়ে।

আটকা পড়ি
সুখের গোধূলিতে।

****

প্রেম ও লালসা

তুমি প্রেমের জন্য আকাঙ্ক্ষিত
কিন্তু লালসার মুখোমুখি
আবেগ, শিখার মতন ছাই।
শরীর ও হাড় শুষ্ক
কিন্তু কামনার চোখে ভেজা
মাটি ক্ষয়প্রাপ্ত, অরক্ষিত এবং খালি হচ্ছে
প্রত্যাশার বালির বিশাল শূন্যতায়
সমুদ্র লবণের নোনতা ও তিক্ত স্বাদ।

মাটির ফাটল খেলা করে
দাগ হওয়ার ভয়ে ভয়ে,
আমাদের কাপড়ে পাপের চিহ্ন
কিন্তু শীত, বর্ষা, গ্রীষ্মে
বসন্ত ঋতুর তেজ।

****

সৈকতে ভোরের আলোয়

আমি জানি, আমি আর বেশিক্ষণ থাকতে পারব না
আমার থাকার অনুভূতি আরও শক্তিশালী।

সাগর এবং চাঁদ—
নতুন সূর্যের অপেক্ষায়
উষ্ণ সৈকতের পাশে সকালের সূর্য
আকাশ একটি নীলকান্তমণি বর্ণের নীল
বালির উপর প্রতিটি তাজা ঝাঁক
অগভীর তরঙ্গের মধ্য দিয়ে আছড়ে পড়ছে
সুবর্ণ বালি, ফিরোজা জল
সামুদ্রিক শৈবাল, নোনা জলের সুগন্ধি বাতাস
সকালের সুন্দর ভোর
আমার পায়ের আঙুলের মধ্যে ভেজা বালি
সোনালি সূর্যোদয়ের আভায়
ঢেউয়ের শীর্ষে ঝলমল, চিকমিক
ভোরের বাতাস সীগালদের জাগিয়ে দিয়েছে।

আমি যেন কারও জন্য অপেক্ষা করছি।

এসইউ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]