আশকোনায় র‌্যাবের অস্থায়ী ক্যাম্পে আত্মঘাতী বোমা হামলা


প্রকাশিত: ০৮:১৪ এএম, ১৭ মার্চ ২০১৭

রাজধানীর আশকোনায় হজ ক্যাম্প সংলগ্ন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) অস্থায়ী ক্যাম্পে এক যুবক আত্মঘাতী বোমা হামলা চালিয়েছেন। শুক্রবার দুপুর ১টার দিকে চালানো এ হামলায় ঘটনাস্থলেই মারা যান ওই যুবক। এ ঘটনায় র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন ডিএমপির বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আজম মিয়া।

তিনি জানান, আশকোনায় হজ  ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকায় র‌্যাবের প্রস্তাবিত সদর দফতর নির্মাণাধীন। সেখানে এক ব্যক্তি দেয়াল টপকে প্রবেশের চেষ্টা করে। এ সময় সেখানে গোসল করছিলেন কয়েকজন র‌্যাব সদস্য। তারা ওই ব্যক্তিকে চ্যালেঞ্জ করলে আত্মঘাতী যুবক নিজের সঙ্গে থাকা বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয় এবং দুই র‌্যাব সদস্য আহত হন। আহতদের ঢাকা সেনানিবাসের সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান ওসি নুরে আজম মিনা।

এদিকে তাৎক্ষণিক ব্রিফিংয়ে র‌্যাবের মিডিয়া ও লিগ্যাল উইংয়ের পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান বলেন, আত্মঘাতী ওই যুবক কোনো জঙ্গি দলের সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে বলে আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি। হামলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আত্মঘাতী অজ্ঞাত ওই যুবকের হাতসহ শরীরের বিভিন্ন অংশ ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে। ‘এ ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থলে র‌্যাবের বোমা ডিসপোজাল ইউনিট কাজ শুরু করেছেন। আশেপাশে তল্লাশি চালিয়ে তারা নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা করছেন- আরও কোনো বিস্ফোরক আছে কিনা।’

এদিকে বন্দরনগরী চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে দুই জঙ্গি আস্তানায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানের ঠিক পরদিন শুক্রবার দুপুরে জুমার নামাজের আগে আশকোনায় র‌্যাবের প্রস্তাবিত সদর দফতরে এ হামলার ঘটনা ঘটলো। ক্যাম্পের বিপরীত দিকে চা দোকানি সাইফুল ইসলাম জানান, দুপুর ১টা থেকে ১টা ১০ এর মধ্যে বিকট শব্দ শোনেন তিনি। তখন পাশের মসজিদে খুতবা চলছিল।

‘হঠাৎ বিকট শব্দে আশপাশের র‌্যাব সদস্য যারা ছিলেন তারা ভেতরে দৌড়ে চলে যান। এরপরই শুনি একজন মারা গেছে।’ বিস্ফোরিত এলাকায় র‌্যাবের প্রস্তাবিত সদর দফতর নির্মাণের কাজ চলছে জানিয়ে র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক জানান, সেখানে প্রশাসনিক শাখার কিছু কর্মকর্তা থাকেন।

এআর/জেইউ/এনএফ/এআরএস/এমএমএ/ওআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]