গুলশানে নিহতদের পরিবার পাবে ২ কোটি ৭৯ লাখ টাকা


প্রকাশিত: ১১:৫৮ এএম, ০৫ জুলাই ২০১৭

রাজধানীর গুলশানে স্প্যানিশ রেস্তোরাঁ হলি আর্টিসান বেকারিতে জঙ্গি হামলায় নিহত ২০ জনের পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরণ হিসেবে ২ কোটি ৭৯ লাখ টাকা অর্থ ছাড় করেছে সরকার। অর্থ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব মো. রাজিবুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক পরিপত্র জারি করে সম্প্রতি এ অর্থ ছাড় করা হয়। পরিপত্রে বলা হয়েছে, এ অর্থ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগকে ২০১৮ সালের ৩০ জুনের মধ্যে বিতরণ করতে হবে।

পরিপত্রে বলা হয়, গুলশানের হলি আর্টিসান রেস্টুরেন্টে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ২০ জন দেশি-বিদেশি নাগরিকের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদানের জন্য পরিবারপ্রতি ১৫ হাজার ইউরো করে মোট ৩ লাখ ইউরো সমপরিমাণ অর্থ প্রদান করা হলো। ১ ইউরো সমান ৯৩ টাকা হিসাবে ২ কোটি ৭৯ লাখ টাকা ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটে অর্থ বিভাগের অপ্রত্যাশিত ব্যয় ব্যবস্থাপনা খাত থেকে জননিরাপত্তা বিভাগের অনুকূলে ক্ষতিপূরণ খাতে নির্দিশক্রমে বরাদ্দ প্রদান করা হলো।

এতে আরও বলা হয়, এ অর্থ ব্যয়ে যাবতীয় আর্থিক বিধি-বিধান এবং ফিন্যান্সিয়াল প্রপার্টি যথাযথভাবে অনুসরণ করতে হবে। বরাদ্দকৃত অর্থ ২০১৬-১৭ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে জননিরাপত্তা বিভাগের সংশ্লিষ্ট কোডে সমন্বয় হবে।

এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, হলি আর্টিসান বেকারিতে জঙ্গি হামলায় দেশি-বিদেশি নিহতের জন্য অর্থ দেয়া হয়েছে। এ অর্থ জননিরাপত্তা বিভাগ বিতরণ করছে।

এর আগে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রথমে শুধু ইতালির নিহত ৯ নাগরিকের পরিবারকে ১ কোটি ২৩ লাখ টাকা দেয়ার সুপারিশ করেছিল। এটাকে বৈষম্য উল্লেখ করে আপত্তি জানান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টিতে আনেন। পরে প্রধানমন্ত্রী নিহত ২০ ব্যক্তির পরিবারকে অর্থসহায়তা দেয়ার নির্দেশ দেন। নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে অর্থ ছাড় করা হয়েছে বলে অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, হলি আর্টিসান বেকারিতে গত বছরের ১ জুলাই রাতে জঙ্গিরা ২০ জনকে হত্যা করে। এদের মধ্যে ৯ জন ইতালি, ৭ জন জাপানি, ৩ জন বাংলাদেশি এবং একজন ভারতের নাগরিক রয়েছেন। এছাড়া সন্ত্রাসীদের হামলায় দুজন পুলিশ কর্মকর্তাও প্রাণ হারান। পরে আহত অবস্থায় ওই বেকারির এক কর্মীর মৃত্যু হয়।

এমইউএইচ/জেডএ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]