রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধে স্মারকলিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৩০ পিএম, ৩০ আগস্ট ২০১৭ | আপডেট: ০৩:৩৭ পিএম, ৩০ আগস্ট ২০১৭
রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধে স্মারকলিপি

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর চলা হত্যা-নির্যাতন বন্ধ এবং বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়ার দাবিতে ঢাকার মিয়ানমার দূতাবাসে স্মারকলিপি দিয়েছে হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ (এইচআরপিবি)।

বুধবার সকালে সংগঠনের সভাপতি অ্যাড. মনজিল মোরসেদের নেতৃত্বে আইনজীবীদের একটি প্রতিনিধি দল এ স্মারকলিপি দেয়।

স্মারকলিপিতে সংগঠনের পক্ষ থেকে বলা হয়, বিগত কয়েক মাস ধরে মিয়ানমারে চলমান রোহিঙ্গা নির্যাতন সবার নজর কেড়েছে। দেশটির রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর হামলার কারণে হাজার হাজার মুসলিম রোহিঙ্গা ঘরবাড়ি ছেড়েছে। শত শত রোহিঙ্গা নারী, শিশু, বৃদ্ধ নির্বিশেষ মৃত্যুবরণ করেছে। এছাড়া কয়েক হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যবর্তী ‘নো-ম্যানস ল্যান্ডে’ অবস্থান করছে। সেখানে তারা মানবেতর জীবন-যাপনে বাধ্য হচ্ছে।

স্মারকলিপিতে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী কর্তৃক রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধসহ বেশ কয়েকটি দাবি জানানো হয়। এগুলো হচ্ছে-

১. রাখাইন রাজ্য থেকে দ্রুত সেনাবাহিনীসহ সরকারের অন্যান্য বাহিনী প্রত্যাহার এবং নির্যাতন বন্ধ করা।
২. নতুন করে কোনো রোহিঙ্গা যাতে আক্রান্ত না হয় তা নিশ্চিত করা।
৩. নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের ন্যূনতম মৌলিক চাহিদার ব্যবস্থা করা।
৪. রোহিঙ্গা নির্যাতন ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা উদঘাটনে স্বাধীন ও নিরপেক্ষ কমিশন গঠন এবং অভিযুক্তদের আইনের আওতায় আনার ব্যবস্থা করা।
৫. ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গাদের ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করা।
৬. বাংলাদেশে অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গাদের অনতিবিলম্বে ফেরত নেয়া।
৭. রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব প্রদান করে এই সমস্যার দ্রুত কার্যকর সমাধান করা।

স্মারকলিপি প্রদানকালে আরও উপস্থিত ছিলেন অ্যাড. আসাদুজ্জামান সিদ্দিকী, একলাস উদ্দিন ভূঁইয়া, সরওয়ার আহাম চৌধুরী, সৈয়দা শাহিন আরা লাইলী, মাহবুবুল ইসলাম, মুজিবুর রহমান, হাফিজুর রহমান পাটোয়ারী, রেজাউল করিম, মো. আবুল কালাম আজাদ, সঞ্জয় মণ্ডল এবং রিপন বাড়ৈ প্রমুখ।

এফএইচ/এমএমজেড/এসআর/এমএস