ভিন্ন ভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কাছে চাহিদা তুলে ধরবে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৫৮ এএম, ০৮ জানুয়ারি ২০১৮

পুলিশ সপ্তাহ-২০১৮ তে এবারই প্রথম স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ছাড়া ৫টি আলাদা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বৈঠকে বসছে পুলিশ। বাহিনীটির অধিকাংশ দাবির সঙ্গে যেসব মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট, পুলিশ সপ্তাহে তাদের সঙ্গে কার্যকরি বৈঠকের এজেন্ডা রাখা হয়েছে।

পুলিশ সপ্তাহের দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা থেকে এসব বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকে অর্থ, গণপূর্ত, আইন, পরিকল্পনা এবং জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী এবং সচিবরা অংশ নেবেন। তাদের সঙ্গে বিভিন্ন দাবি-দাওয়া নিয়ে আলোচনা করবে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

‘পুলিশ সপ্তাহ-২০১৮’ নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক বলেছেন, পুলিশ সপ্তাহে প্রতিবছর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী এবং সচিবদের সঙ্গে বৈঠক হয়ে থাকে। কিন্তু স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ছাড়াও বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে পুলিশের অনেক ইস্যু থাকে। এ জন্য এবার পুলিশ সপ্তাহে আসার সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন অনেক মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী এবং সচিব। তাদের সঙ্গে আয়োজিত সভায় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হবে।

একই দিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বৈঠক করবে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। পরদিন বুধবার (১০ জানুয়ারি) দুপুর ১২টায় বঙ্গভবনে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময়ের পর তাদের উদ্দেশে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।

উল্লেখ্য, ৫ দিনব্যাপী (৮-১২ জানুয়ারি) এবারের পুলিশ সপ্তাহ-২০১৮ এর মূল প্রতিপাদ্য-‘জঙ্গি মাদকের প্রতিকার, বাংলাদেশ পুলিশের অঙ্গীকার’। পুলিশ সপ্তাহ উপলক্ষে ২০১৭ সালে পুলিশ বাহিনীর সদস্যগণের অসীম সাহসিকতা ও বীরত্বপূর্ণ কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ ৩০ পুলিশ সদস্যকে ‘বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম)’, ৭১ জনকে ‘রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক (পিপিএম)’ এবং গুরুত্বপূর্ণ মামলার রহস্য উদ্ঘাটন, অপরাধ নিয়ন্ত্রণ, দক্ষতা, কর্তব্যনিষ্ঠা, সততা ও শৃঙ্খলামূলক আচরণের মাধ্যমে প্রশংসনীয় অবদানের জন্য ২৮ পুলিশ সদস্যকে ‘বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম)-সেবা’ এবং ৫৩ জনকে‘রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক (পিপিএম)-সেবা’ প্রদান করা হবে। জঙ্গি ও সন্ত্রাস মোকাবেলায় শহীদ লে. কর্নেল আবুল কালাম আজাদ, ইন্সপেক্টর মরহুম চৌধুরী মো. আবু কায়ছার এবং ইন্সপেক্টর মরহুম মোহাম্মদ মনিরুল ইসলামকে বিপিএম-মরণোত্তর পদক প্রদান করা হবে।

এআর/আরএস/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :