মানহীন মেডিকেলে ভর্তির অনুমোদন দিয়েছেন আদালত

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৫৮ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৮:০৩ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০১৮

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, অর্থের বিনিময়ে শিক্ষার্থী ভর্তি করে কিছু মেডিকেল কলেজ অনুমোদন দেবার জন্য মন্ত্রণালয়কে চাপ দিচ্ছে। আমরা দেইনি। কিন্তু তারা নামকরা আইনজীবী ধরে আদালতে গিয়েছে। বড় বড় আইনজীবী- এখানেও (সংসদ) কয়েক জন আছেন। আদালতে গিয়ে মিথ্যা কথা বলে মানহীন এসব কলেজে ভর্তির অনুমোদন নিয়েছে।

রোববার জাতীয় সংসদের পঞ্চানন বিশ্বাসের (খুলনা-১) সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান। স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, মেডিকেলে শিক্ষার মান নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে সরকার। কয়েকটি মেডিকেল কলেজে মান রক্ষা করেনি। তাদের কোনো একাডেমিক ভবন নেই, লাইব্রেরি নেই, শিক্ষক নেই, হাসপাতালে কোনো রোগী থাকে না।

এ ধরনের কয়েকটি মেডিকেল কলেজে পরপর দুই বছর শিক্ষার্থী ভর্তির অনুমোদন দেয়া হয়নি। তিনটি কলেজ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের শর্ত পরিপালন করায় তাদের অনুমোদন দেয়া হয়। কিন্তু দুঃখজনক বিষয় হচ্ছে কয়েকটি কলেজ আদালতে চলে গেছে। কোর্ট একটি সম্মানের জায়গা। আমরা তাদের সব সময় সম্মান করি। তারা নিজেরা মাঝে মধ্যে রুল দেয় মেডিকেল কলেজের মান রাখতে হবে। আবার তারাই কয়েকদিন আগে পরপর চারটি মেডিকেল কলেজকে ভর্তির অনুমোদন দিয়েছেন। অথচ ওইসব কলেজের মান বৃদ্ধি পায়নি।

তিনি বলেন, আইনজীবীরা কিসের বিনিময়ে এটা করেন জানি না। ভর্তির কার্যক্রম শেষ হয়ে যাওয়ার পর অর্থের বিনিময়ে মিথ্যা তথ্য দিয়ে মানহীন এসব কলেজে ভর্তির অনুমোদন নেয়া হয়েছে। তারা উচ্চ আদালতের অনুমোদন নিয়ে শিক্ষার্থী ভর্তি কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। তাহলে কোথায় আমরা যাব? একদিকে আমরা শিক্ষার মান রক্ষা করতে চাচ্ছি অন্যদিকে বড় বড় আইনজীবী ধরে এ কলেজে ভর্তির অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন অনুমোদন দেয়নি। শিক্ষা-মন্ত্রণালয় অনুমোদন দেয়নি। মানহীন, স্ট্যান্ডার্ড নাই-এমন বেসরকারি মেডিকেল কলেজে ছাত্র ভর্তির জন্য আদালত থেকে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। কিন্তু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ ভর্তি অনুমোদন করে না, করবে না।

এইচএস/এমআরএম/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :