‘গণগ্রেফতার নয়, ভিডিও ফুটেজ দেখে গ্রেফতার’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:২৫ পিএম, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
ফাইল ছবি

৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার দুর্নীতি মামলার রায়কে কেন্দ্র করে ঢাকায় বিএনপির সমর্থকদের গণগ্রেফতার করা হচ্ছে। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জমান মিয়া বলেন, ‘পুলিশের ওপর হামলাকারী এবং যারা অতীতে জ্বালাওপোড়াও করেছে ভিডিও ফুটেজ দেখে তাদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার করা হচ্ছে। এটা গণগ্রেফতার নয়।’

বুধবার ডিএমপি হেডকোয়ার্টার্সে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘কোনো গণগ্রেফতারের ঘটনা নেই। গণগ্রেফতারের অভিযোগ থাকলে দেন। আমরা ব্যবস্থা নেবো। তবে ৩০ জানুয়ারি পুলিশের ওপর হামলা, অস্ত্র ভাঙচুর, পুলিশ পেটানোসহ ফিল্মি স্টাইলে পুলিশকে ফ্লাইংকিক দিয়ে আসামি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। অতীতে যারা এ ধরনের জ্বালাওপোড়াওসহ জনগণকে হয়রানি করেছে ভিডিও ফুটেজ দেখে তাদের শনাক্ত করে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

কমিশনার আরো বলেন, ‘৮ ফেব্রুয়ারির একটি রায়কে কেন্দ্র করে ইলেক্ট্রনিক, প্রিন্ট ও সোশ্যাল মিডিয়াতে নানা গুজব ও শঙ্কার কথা শুনেছি। পুলিশ জানমালের নিরাপত্তা দেবে, নগরবাসীকে রক্ষার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি পুলিশের রয়েছে। কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। রায়কে কেন্দ্র করে কোনো ব্যক্তি জ্বালাওপোড়াও-ভাঙচুর করতে পারবে না। শহরজুড়ে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। ২০১৪-১৫ তে যেভাবে জ্বালাওপোড়াও করা হয়েছে, যেভাবে সাধারণ মানুষের ওপর আক্রমণ করা হয়েছে, অগ্নিসন্ত্রাস, বোমাসন্ত্রাস করা হয়েছে- সে ধরনের অপতৎপরতা রোধে সব ধরনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।’

৮ ফেব্রুয়ারি কোনো ধরনের নাশকতার আশঙ্কা আছে কিনা- জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আশঙ্কা নেই তা বলা যাবে না, আবার আশঙ্কা আছে, তাও বলা যাবে না। তবে অতীত অভিজ্ঞতার কথা বলি, ৯২ দিন আন্দোলনের নামে যে জ্বালাওপোড়াও করা হয়েছে এবার সে সুযোগ দেয়া হবে না, একবিন্দু ছাড় দেয়া হবে না।’

ঢাকায় অতিরিক্ত নিরাপত্তার পেছনে কোনো রাজনৈতিক নির্দেশনা আছে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে কমিশনার বলেন, ‘আইনে আছে পুলিশ জনগণের জানমালের নিরাপত্তা দেবে। এটি পুলিশের কাজের অংশ। যে কোনো ধরনের জ্বালাওপোড়াও রোধে পুলিশ নিরাপত্তা দেবে, এটা রাজনৈতিক নয়। যারা এর সঙ্গে রাজনৈতিক বিষয় জড়াচ্ছেন, বুঝতে হবে তারা পরোক্ষভাবে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টির ইন্ধন দিচ্ছেন।

৮ ফেব্রুয়ারি নিয়ে কী ধরনের গোয়েন্দা তথ্য আছে- জানতে চাইলে কমিশনার বলেন, গোয়েন্দা তথ্য আছে কিন্তু স্পষ্ট নয়। তবে আমরা সোশ্যাল মিডিয়াতে দেখেছি বিভিন্ন গ্রুপ ‘লাঠি নিয়ে আসবেন’, ‘মার খাবেন না, গ্রেফতার হবেন না’- এ ধরনের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আমরা এসব তথ্য পর্যালোচনা করছি।

বিএনপির সমর্থকরা গণতান্ত্রিক কোনো কর্মসূচি করতে পারবেন কিনা- জানতে চাইলে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘কেউ যদি শান্তিপূর্ণভাবে গণতান্ত্রিক কর্মসূচি পালন করে তাহলে কোনো সমস্যা হবে না। শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে পুলিশ বাধা দেবে না।’

আগামীকাল বৃহস্পতিবার বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণার দিন ধার্য রয়েছে। এ নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে অস্থিরতা বিরাজ করছে।

এআর/এমএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :