রাজীব ও হৃদয়ের হাতের পর রোজির পা বিচ্ছিন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৩১ এএম, ২১ এপ্রিল ২০১৮

দুই বাসের রেষারেষিতে হাত হারিয়ে মারা যাওয়া রাজীবের শোক কাটতে না কাটতেই এবার ঢাকায় বিআরটিসির বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে পা বিচ্ছিন্ন হলো রোজি নামের এক তরুণীর। গত ১৭ এপ্রিল গোপালগঞ্জে ট্রাকের ধাক্কায় বিচ্ছিন্ন হয় হৃদয়ের হাত।

শুক্রবার (২০ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৮টার দিকে রাজধানীর বনানীর চেয়ারম্যান বাড়ির সামনে রোজির পা হারাতে হলো। রোজি বর্তমানে রাজধানীর পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

বনানী থানার ডিউটি অফিসার (এসআই) শামছুল হক জাগো নিউজকে বলেন, বিআরটিসির ঢাকা মেট্রো ব ১১- ৫৭৩৩ বাসের ধাক্কায় মেয়েটির ডান পায় বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। ঘাতক বাসচালককে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে।

রোজিকে পঙ্গু হাসপাতালে নিয়ে আসা প্রত্যক্ষদর্শী কাউসার আহমেদ জানান, বনানীর চেয়ারম্যান বাড়ি ফুটওভার ব্রিজের নিচ থেকে ২০ হাত দূরে রাস্তা পারাপারের সময় হঠাৎ রোজি রাস্তায় পড়ে যান। এ সময় মহাখালী থেকে উত্তরাগামী বিআরটিসির একটি দোতলা বাস তার ডান পায়ের ওপর দিয়ে চলে যায়। সঙ্গে সঙ্গে হাঁটু থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় পায়ের নিচের অংশ।

রোজি বনানী নিকেতনের একটি বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করেন।

উল্লেখ্য, গত ৩ এপ্রিল সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতকের (বাণিজ্য) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রাজীব হোসেন (২১ ) রাজধানীর কারওয়ান বাজারে দুই বাসের রেষারেষিতে চাপা পড়ে হাত হারান। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৪দিন পর ১৬ এপ্রিল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় তিনি মারা যান।

আর গত ১৭ এপ্রিল গোপালগঞ্জে ট্রাকের ধাক্কায় বাসের সরকারী হৃদয় শেখের হাত বিচ্ছিন্ন হয়। এরপর তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এআর/জেডএ

আপনার মতামত লিখুন :