‘সেমাই তৈরি দেখলে খাওয়ায় রুচি হবে না’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৮ পিএম, ২৭ মে ২০১৮ | আপডেট: ১০:০১ পিএম, ২৭ মে ২০১৮

‘কি পরিবেশে তৈরি হচ্ছে সেমাই। দেখলে খাওয়ার রুচি হবে না। গোয়াল ঘরের পাশেই তৈরি হচ্ছে বিভিন্ন পদের সেমাই। ময়লার মাছি এসে বসছে সেমাইয়ের উপর। দেখলে বোঝার উপায় নেই সেমাইয়ের কারখানা নাকি গোয়াল ঘর।’

রাজধানীর কামরাঙ্গিচর এলাকায় অবৈধ সেমাই কারখানায় অভিযান পরিচালনা করে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। অভিযানে সেমাই তৈরির পরিবেশ দেখে এ মন্তব্য করেন অধিদফতরের এক কর্মকর্তা।

অভিযানে অনুমোদন ছাড়াই নোংরা অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে সেমাই তৈরির অভিযোগে পাঁচ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করেছে অধিদফতর।

semai

প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- নাসির ফুড প্রোডাক্টস, শান্ত ফুড প্রোডাক্টস, মোহাম্মদ আলী ফুডস, হাশেম ফুড প্রোডাক্টস এবং বিউটি ফুড প্রোডাক্টস।

অভিযানে সার্বিক তদারকি করেন ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক (উপ-সচিব) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার। অভিযান পরিচালনা করেন অধিদফতরের ঢাকা জেলা অফিসের সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মণ্ডল। সার্বিক সহযোগিতা করে কামরাঙ্গীরচর থানার ওসি ও আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ান (এপিবিএন)-১ ও ১১ সদস্যরা।

সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মণ্ডল বলেন, কামরাঙ্গিচর এলাকার সেমাই কারখানায় অভিযান চালানো হয়। কি পরিবেশে তৈরি হচ্ছে সেমাই। দেখলে খাওয়ার রুচি হবে না। গোয়াল ঘরের পাশেই সেমাই শুকানো হচ্ছে। ময়লা দুর্গন্ধ। গোয়াল ঘরের ময়লার মাছি এসে বসছে সেমাই মধ্যে।

semai

তিনি বলেন, এসব প্রতিষ্ঠানের কোনো অনুমোদন নেই। সিভিল সার্জনের একটি ছাড়পত্র নিতে হয় তাও নেয়নি। ছোট ছোট পরিসরে সেমাই তৈরি করছে। তাদের একাধিকবার বিভিন্ন সংস্থা জারিমানা করেছে তাও সংশোধন হননি।

আজকে অভিযানে পাঁচটি সেমাই কারখানাসহ ছয় প্রতিষ্ঠানকে মোট দুই লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা কয় হয়। এর মধ্যে নাসির ফুড প্রোডাক্টসকে ৩০ হাজার, শান্ত ফুড প্রোডাক্টসকে ৫০ হাজার, মোহাম্মদ আলী ফুডসকে ৩০ হাজার, হাশেম ফুড প্রোডাক্টসকে ৫০ হাজার এবং বিউটি ফুড প্রোডাক্টসকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ ছাড়া বোম্বে কনফেকশনারিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এসআই/এএইচ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :