আদিবাসীরা দেশান্তরী হতে চায় না

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৪ পিএম, ০৯ আগস্ট ২০১৮

আদিবাসীরা দেশান্তরী হতে চায় না এই বাংলাদেশ তাদের মাতৃভূমি। নিজ ভূমি রক্ষায় ক্ষুদ্র জাতিসত্তার মানুষদেরকেই ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এদেশের সব মানুষের মতো মর্যাদা নিয়েই বেঁচে থাকতে চাই।

বলছিলেন, বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের সভাপতি জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় ওরফে সন্তু লারমা। আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অনুষ্ঠানে সন্তু লারমা এমন মন্তব্য করেন।

বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের বিভিন্ন ক্ষুদ্র জাতিসত্তার মানুষের অধিকার নিয়ে বিশ্বব্যাপী ৯ আগস্ট পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস। বাংলাদেশেও এসব জাতিসত্তার মানুষের সংগঠনগুলো পালন করে দিবসটি।

দেশে ৫০টির বেশি জাতিসত্তার মানুষের বাস। বিভিন্ন প্রান্তে আজ দিবসটি পালিত হচ্ছে। বরাবরের মতো এবারও ঢাকায় কেন্দ্রীয় অনুষ্ঠানটির আয়োজন করেছে বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম।

শহীদ মিনারে সকাল থেকে সেখানে জড়ো হতে থাকেন ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর মানুষ। এদের মধ্যে জেমসন বম এসেছেন বান্দরবানের রোয়াংছড়ি থেকে, নিখিল টুডু বরেন্দ্রভূমি রাজশাহীর পবা থেকে, মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের মণিপুরীপাড়া থেকে নিরেন সিনহা, পটুয়াখালীর রাখাইনপল্লি থেকে উ মে ম্রং। তারা একা নন, দলে দলে এসেছেন আদিবাসী দিবস উদযাপনে।

বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত এসব জাতিসত্তার মানুষ প্রান্তিক অবস্থায় আছেন। বাংলাদেশের নানা সরকারি দলিলেও তাদের প্রান্তিক অবস্থার কথা উল্লেখ রয়েছে। আর্থিক, রাজনৈতিক, সামাজিক সুযোগ এখনো এসব মানুষ পাননি।

এসব জাতির মানুষেরা বলছেন, এই অবস্থার ফলে তাদের ওপর নিগ্রহ বাড়ছে। ফলে তাদের ভূমি ও আবাসস্থল দখল হচ্ছে। তারা দেশান্তরী হচ্ছেন। এবারের আদিবাসী দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘আদিবাসী জাতিসমূহের দেশান্তর : প্রতিরোধের সংগ্রাম।’

সন্তু লারমা বলেন, ‘পার্বত্য চট্টগ্রামসহ অনেক জায়গায় জাতিগত ও ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ভূমি ও সম্পদ দখল হচ্ছে। তাদের অস্তিত্ব এখন হুমকির মুখে। শাসকগোষ্ঠীর দর্শন ও চিন্তাধারা গণতান্ত্রিক, অসাম্প্রদায়িক নয়। আর এজন্যই বিভিন্ন জাতিসত্তার মানুষের ওপর নিগ্রহ বাড়ছে।’

এই নিগ্রহ থেকে বাঁচার পথের দিশাও দেন সন্তু লারমা। বলেন, ‘আমাদের অস্তিত্ব রক্ষার জন্য দরকার নিরন্তর সংগ্রাম ও আন্দোলন।’ আর এ আন্দোলনে শুধু ক্ষুদ্র জাতিসত্তার মানুষ নয়, বৃহত্তর বাঙালি জনগোষ্ঠীর অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক শক্তির সহায়তা চান পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান সন্তু লারমা।

এএসএস/এমআরএম/পিআর