মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে দুই কিশোরীকে গণধর্ষণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০৪:০৫ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
গ্রেফতার ৬ ধর্ষক

মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে চট্টগ্রাম নগরের নিউমার্কেট এলাকার একটি বহুতল ভবনের ছাদে দুই কিশোরীকে গণধর্ষণ করেছেন আট ব্যক্তি। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ওই আট ব্যক্তির মধ্যে ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার (২৩ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে জলসা মার্কেটের নবম তলার ছাদে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনার পরপর ছয় আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতাররা হলেন- আব্দুল আউয়াল ওরফে ডালিম (৩০), ফারুক (২৭), কবির (২৭), জাহাঙ্গীর আলম (২৪), বাবলু (২৮), সেলিম (৩৫)। অপর দুই আসামি এনাম (২৭) ও রুবেল (২৫) পলাতক।

ওই মার্কেটের পঞ্চম তলার জয়ন্তী বোরকা হাউসের মালিক রাশেদ জানান, ১৬-১৭ বছর বয়সী এক কিশোরী আগে জলসা মার্কেটে চাকরি করতো। তার দোকানে একজন কর্মচারী লাগবে। সে হিসেবে ওই তরুণী তার সমবয়সী এক বান্ধবীকে নিয়ে গতকাল রোববার দুপুর ২টার দিকে সেখানে যায়।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন জাগো নিউজকে বলেন, ‘চাকরির বিষয়ে কথা বলে চলে আসার সময় ওই দোকানের এক মেয়ের মোবাইল হারিয়ে গেছে বলে ডালিম ও সেলিম নামের দুইজন ওই দুই কিশোরীকে আটকিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে। সন্ধ্যা ৬টার দিকে প্রথমে রাশেদের রুমে বসিয়ে মোবাইল চুরি করেছে কি-না, তা তাদের কাছে জানতে চাওয়া হয়। এরপর সেলিমের দোকানে নিয়ে যাওয়া হয় দুই কিশোরীকে।’

ওসি বলেন, ‘এরপর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে শালিসের কথা বলে দুই কিশোরীকে মার্কেটের ৯ম তলার ছাদে নিয়ে যান তারা। এরপর আট ব্যক্তি পালাক্রমে দুই কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। বাড়ি থেকে বের হওয়ার দীর্ঘক্ষণ পরও ঘরে না ফেরায় প্রথম কিশোরীর মা রাত সাড়ে ১০টার দিকে মার্কেটে যান। তিনি সমিতির লোকজনের সহায়তায় মার্কেটের ছাদে গিয়ে তার মেয়ে ও মেয়ের বান্ধবীর খোঁজ পান। এ সময় তারা অসুস্থ অবস্থায় সেখানে পড়েছিল।’

খবর পেয়ে কোতোয়ালি থানার টহল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে জড়িত আট ধর্ষকের মধ্যে ছয়জনকে গ্রেফতার করে। ওসি মোহাম্মদ মহসীন জানান, এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে রোববার রাতেই মামলা করে।

জেডএ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :