মইনুলকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে ১৫ বিশিষ্ট নাগরিকের বিবৃতি

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০৬ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০১৮

সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে 'চরিত্রহীন' বলায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার জন্য বিবৃতি দিয়েছেন ১৫ বিশিষ্ট নাগরিক। শুক্রবার মুক্তিযোদ্ধা, নাটক ও চলচ্চিত্র পরিচালক নাসির উদ্দীন ইউসুফ প্রেরিত এক বিবৃতিতে এ কথা জানানো হয়।

বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারী ১৫ বিশিষ্ট নাগরিক হলেন- ১. অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, ২. লেখক হাসান আজিজুল হক, ৩. অধ্যাপক অনুপম সেন, ৪. নাট্যজন রামেন্দু মজুমদার, ৫. আতাউর রহমান, ৬. ফেরদৌসী মজুমদার, ৭. আলী যাকের, ৮. মামুনুর রশীদ, ৯. নাসিরউদ্দীন ইউসুফ বাচ্চু ১০. তারিক আলী, ১১. সারা যাকের, ১২. শিমুল ইউসুফ, ১৩. কবি মুহাম্মদ সামাদ, ১৪. হাসান আরিফ, ১৫. গোলাম কুদ্দুছ।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘সাংবাদিক, কলামিস্ট ও দৈনিক আমাদের নতুন সময়ের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাসুদা ভাট্টি একাত্তর টেলিভিশনে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে একটি প্রশ্ন করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন মাসুদা ভাট্টিকে চরিত্রহীন বলে গালি দেয়ায় আমরা তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। আমরা মনে করি যে, কেবল সাংবাদিকসুলভ প্রশ্ন করায় কাউকে এরকম ক্ষিপ্ত হয়ে চরিত্রহীন বলার এখতিয়ার কারোরই নেই। স্বাধীন সাংবাদিকতা ও উন্মুক্ত গণমাধ্যম যখন বিভিন্নভাবে আক্রান্ত তখন রাজনীতিবিদ ও আইনবিদ হিসেবে ব্যারিস্টার মইনুলের কাছ থেকে এরকম আচরণ অনভিপ্রেত।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘দেশের ক্ষুব্ধ নারী সমাজের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করে আমরা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের এই নিন্দনীয় আচরণে অত্যন্ত ক্ষুব্ধ। আমরাও অবিলম্বে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের এই অনভিপ্রেত বক্তব্য প্রত্যাহারপূর্বক প্রকাশ্যে মার্জনা প্রার্থনা আশা করছি। এটা শুধু মাসুদা ভাট্টিকে অপমান করা হয়েছে বলে নয়, বরং ভবিষ্যতে যাতে কেউ আর এভাবে কাউকে ব্যক্তি আক্রমণ না করেন সেটা নিশ্চিত করার জন্যই অবিলম্বে তার কাছ থেকে প্রকাশ্যে একটি মার্জনা প্রার্থনা প্রয়োজন বলে আমরা মনে করি।’

উল্লেখ্য, গত ১৬ অক্টোবর একাত্তর টেলিভিশনের টক শো ‘একাত্তরের জার্নাল’ এ ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি প্রশ্ন করেন, ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে আপনি যে হিসেবে উপস্থিত থাকেন- আপনি বলেছেন আপনি নাগরিক হিসেবে উপস্থিত থাকেন। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই বলছেন, আপনি জামায়াতের প্রতিনিধি হয়ে সেখানে উপস্থিত থাকেন।’

মাসুদা ভাট্টির এই প্রশ্নে রেগে গিয়ে মইনুল হোসেন বলেন, ‘আপনার দুঃসাহসের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ দিচ্ছি। আপনি চরিত্রহীন বলে আমি মনে করতে চাই। আমার সঙ্গে জামায়াতের কানেকশনের কোনো প্রশ্নই নেই। আপনি যে প্রশ্ন করেছেন তা আমার জন্য অত্যন্ত বিব্রতকর।’

জেডএ/এএইচ

আপনার মতামত লিখুন :