সেই দুই যুবক ‘শনাক্ত’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৫৬ এএম, ১৫ নভেম্বর ২০১৮

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দলটির নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষ চলাকালে পুলিশের গাড়িতে আগুন দেয়া ও গাড়ির ওপরে উঠে লাফানো সেই দুই যুবককে শনাক্ত করার দাবি করেছে পুলিশ। মতিঝিল বিভাগের পুলিশ বলছে, ওই দুইজনই ছাত্রদলের কর্মী।

বৃহস্পতিবার সকালে যোগাযোগ করা হলে ডিএমপির মতিঝিল বিভাগের মতিঝিল জোনের সহকারী কমিশনার মিশু বিশ্বাস জাগো নিউজকে বলেন, আমরা প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছি, পুলিশের গাড়িতে যে যুবক আগুন দিয়েছে তার নাম শাহজালাল খন্দকার। তিনি পল্টন থানা ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য। একই ঘটনার সময় পুলিশের গাড়ির ওপর যে যুবককে লাফাতে দেখা গেছে, তিনিও ছাত্রদলের পল্টন কমিটির সদস্য। তবে তার নাম প্রকাশ করেননি তিনি।

ওই দুজনকে এখনও গ্রেফতার করা যায়নি বলেও জানিয়েছে পল্টন থানা পুলিশ।

এর আগে বুধবার দিনগত রাতে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের লাইভ প্রোগ্রামে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি সমর্থকদের সংঘর্ষ ও গাড়ি পোড়ানোর ঘটনায় পল্টন থানায় তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে উপস্থিতদের মধ্য থেকে জড়িত সন্দেহে ৩০ জনকে শনাক্ত করার কথা জানান তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে পল্টন থানার ওসি মাহমুদুল হক জাগো নিউজকে বলেন, নয়াপল্টনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি সমর্থকদের সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, পুলিশের ওপর হামলা এবং গাড়িতে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস ও তার স্ত্রী মহিলা দলের সভানেত্রী আফরোজা আব্বাসকে মূল আসামি করা হয়েছে। পল্টন থানায় দায়ের করো মামলাগুলোর নম্বর হচ্ছে- ২১, ২২ ও ২৩।

বুধবার রাতে দায়ের করা মামলাগুলোতে আব্বাস দম্পতি ছাড়াও বিএনপির কয়েকজন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে ‘অজ্ঞাত’ আরও অনেককে আসামি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

মামলার এজাহারে বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় সম্পদ বিনষ্ট, হত্যার উদ্দেশ্যে পুলিশের ওপর হামলার, সরকারি কাজে বাধা প্রদান, সড়কে যানচলাচলে প্রতিবন্ধকতা ও সাধারণ মানুষের জানমালের নিরাপত্তা বিঘ্নের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

এসব মামলায় বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক এমপি হেলালুজ্জামান তালুকদার লালুসহ ৬৫ জন গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পল্টন থানার এক ডিউটি অফিসার (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক)।

উল্লেখ্য, দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহের মধ্যেই বুধবার ঢাকার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে দলটির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে পুলিশের একটি পিকআপভ্যানসহ দুটি গাড়ি জ্বালিয়ে দেয়া হয়। সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নির্দিষ্ট দূরত্বে অবস্থান নিয়ে টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পুলিশ।

অন্যদিকে, নয়াপল্টন কার্যালয়ের সামনে বিক্ষিপ্ত মিছিল করেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। জ্বালিয়ে দেয়া পুলিশের পিকআপ ভ্যানটির নম্বর ২৩১১। পুলিশের মতিঝিল জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) গাড়িটি ব্যবহার করতেন বলে জানা গেছে।

জেইউ/এমবিআর/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :