সাদপন্থীদের ইজতেমা শুরু, বৃষ্টিতে দুর্ভোগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ০৯:১৬ এএম, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
ফাইল ছবি

চার দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমার তৃতীয় দিন চলছে। প্রথম দুইদিন মাওলানা জোবায়ের অনুসারীদের শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে তাদের পর্ব শেষ হয়েছে। আজ রোববার বাদ ফজর তাবলিগের শীর্ষ মুরব্বি ভারতের মাওলানা ইকবাল হাফিজের আমবয়ানের মধ্যদিয়ে মাওলানা সাদ অনুসারীদের পরিচালনায় দুই দিনের ইজতেমা শুরু শুরু হয়েছে।

তবে সকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হওয়ায় ইজতেমা ময়দানে মুসল্লিদের মালামাল পলিথিন দিয়ে ঢেকে রাখতে দেখা গেছে। অনেকে চটের সামিয়ানার নিচে পলিথিন টানিয়ে বৃষ্টির পানি থেকে রক্ষা পাওয়ার চেষ্টা করছেন। বিশেষ করে ইজতেমায় আগত বয়স্ক মুসল্লিরা বৃষ্টির কারণে চরম দূর্ভোগে পড়েছেন।

ইজতেমায় আসা মুসল্লিরা সাধারণত ইজতেমা ময়দানের উন্মুক্ত স্থানে রান্নাবান্না করে থাকেন। বৃষ্টির কারণে তাদের রান্না করাও কষ্টসাধ্য হয়ে গেছে। ময়দানের ভেতরে অনেককে পলিথিন দিয়ে মুড়িয়ে জুবু-থুবু হয়ে বসে থাকতে দেখা গেছে।

বৃষ্টির পরিমাণ বাড়তে থাকলে মুসল্লিদের মাঠে থাকা প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়বে। এ ক্ষেত্রে ইজতেমা কর্তৃপক্ষই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানান মাওলানা সাদ অনুসারী মুরুব্বি সৈয়দ আনিসুজ্জামান।

শনিবার মধ্যরাতের আগেই মাওলানা জোবায়ের অনুসারীরা ইজতেমা ময়দান ত্যাগ করার পর ধীরে ধীরে ময়দানে প্রবেশ করতে থাকেন মাওলানা সাদ অনুসারী মুসল্লিরা। মুসল্লিদের মাঠে প্রবেশের এ ঢল আজ সকালেও অব্যাহত থাকে। কাল সোমবার আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে এবারের ৫৪তম বিশ্ব ইজতেমা পরিসমাপ্তির কথা রয়েছে।

গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর জানান, ইজতেমা সমাপ্তির পর ইজতেমার সকল মালামাল প্রশাসনের হেফাজতে থাকবে। পরে উভয়পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। মুসল্লিদের সার্বিক বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রশাসন খোঁজখবর রাখছে বলেও জানান তিনি।

মো. আমিনুল ইসলাম/এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]