ঢাকায় চলবে বিআরটিসির নতুন সাড়ে চারশ’ বাস

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৩০ পিএম, ১৩ মার্চ ২০১৯

গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরাতে এবং যাত্রীদের সুবিধার্থে আমদানি করা বিআরটিসির ৬০০ বাসের মধ্যে ৪৫০টি বাস ঢাকা শহরে চলাচল করবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন।

বুধবার সন্ধ্যায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নগরভবনের সভাকক্ষে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে বাস রুট র‌্যাশনালাইজেশন বিষয়ে গঠিত কমিটির তৃতীয় সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান মেয়র।

মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ‘৬টি কোম্পানির মাধ্যমে বাস রুট পরিচালনার করে গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফিরেয়ে আনতে গঠিত কমিটির সদস্যদের নিয়ে আজ তৃতীয়বারের মতো বৈঠক করলাম আমরা। সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানোর সামগ্রিক ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করতে বেশ কিছু সময়ের প্রয়োজন। এ সময়ের মধ্যে আমরা আমাদের নাগরিকদের জন্য যাতে কিছু করতে পারি সেজন্য আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি বিআরটিসির আমদানি করা ৬০০টি বাসের মধ্যে ৪৫০টি বাস ঢাকা শহরে পরিচালিত হবে। সেখানে এসি, নন-এসি, ডাবল ডেকারও বাস রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা ঢাকা শহরের উত্তরা, ধানমন্ডি, মতিঝিল-এই তিনটি এলাকায় চক্রাকার বাস সার্ভিস চালু করতে যাচ্ছি। আশা করছি আগামী এপ্রিল মাস থেকে জুন মাসের মধ্যে সম্পূর্ণভাবে পরিচালনা করতে পারব এই সেবাটি।’ সার্ভিসটি প্রাথমিকভাবে এপ্রিল মাসের মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ অর্থাৎ এপ্রিলের মাঝামাঝি থেকে এই সেবা শুরু হবে বলেও জানান তিনি।

রাজধানীর সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে মেয়র তার কর্মপরিকল্পনার কথা জানিয়ে বলেন, ‘রাজধানীর সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে ড্রাইভারদের ড্রাইভিং দক্ষতা বৃদ্ধি করার জন্য বিআরটিসির আওতাধীন সেসব ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে সেগুলোতে একটি প্রকল্প গ্রহণের মধ্যদিয়ে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বেসরকারি খাতের ড্রাইভারদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। অদক্ষ চালকদের কারণে অনেক সময় দুর্ঘটনার ঘটে, এ সমস্য নিরসনের জন্য আমরা আমদের পরবর্তী সভায় সিদ্ধান্ত নেব কতজন ড্রাইভারকে আমরা ৬ মাসের মধ্যে প্রশিক্ষণ দেব।’

তিনি বলেন, ‘সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে আমাদের যে পরিকল্পনা তা বাস্তবায়ন করতে কমপক্ষে দুই বছর সময় লাগবে। এ সময় এই কমিটি বসে থাকবে না, এ সময়ের মধ্যে উল্লেখযোগ্য এবং ছোট ছোট কাজের মাধ্যমে বিভিন্ন সেবা পরিচালনা করা হবে।’

এর আগে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের সভাকক্ষে মেয়র সাঈদ খোকনের সভাপতিত্বে কমিটির তৃতীয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান, পরিবহন মালিক সমিতির নেতা এনায়েতুল্লাহ খানসহ ডিএমপি, বিআরটিসি, বিআরটিএ, ডিটিসিএ, রাজউক, ওয়াসাসহ সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর প্রতিনিধিরা।

প্রসঙ্গত, রাজধানীর গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরানো ও যানজট নিরসনের লক্ষ্যে গত বছর সিনিয়র সচিব জাফর আহমেদ খান স্বাক্ষরিত একটি প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এই কমিটি গঠন করে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ।

১০ সদস্যের এই কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনকে। কমিটিতে ডিএনসিসির মেয়রকে যুগ্ম-আহ্বায়ক করা হয়েছে। এ ছাড়া অন্য সদস্যরা হলেন বিআরটিএর চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান, রাজউক চেয়ারম্যান, ডিএমপি কমিশনার, গণপরিবহন বিশেষজ্ঞ ড. এস এম সালেহ উদ্দিন, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি ও ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক।

এএস/এসআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :