মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটির বিবৃতি

মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন
মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন , আমিরাত প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০২:৪৪ এএম, ২২ এপ্রিল ২০১৯

 

চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলাধীন মুহাম্মদপুর এলাকায় গত ১৭ এপ্রিল ২০১৯ বুধবার ৭নং রাউজান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাম্মেল হকের ওপর হামলার প্রেক্ষিতে রাউজানে উদ্ভূত পরিস্থিতির বর্ণনা দিয়ে মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটি বাংলাদেশ এর পক্ষ থেকে একটি প্রতিবাদ লিপি গত ১৯ এপ্রিল চট্টগ্রামের বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ ও বিজ্ঞাপন আকারে প্রচার করা হয়।

মোজাম্মেল হকের ওপর হামলা পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য ১৮ এপ্রিল রাউজানের সংসদ সদস্যের সঙ্গে দেখা করে হামলার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের জন্য মুনিরীয়া যুব তবলীগ কমিটি বাংলাদেশ এর পক্ষ থেকে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

কিন্তু মোজাম্মেল হকের ওপর হামলার ঘটনাকে উপজীব্য করে একশ্রেণীর দুস্কৃতিকারী আওয়ামী লীগ ও যুবলীগ কর্মীর নাম ব্যবহার করে রাউজানের সর্বত্র মুনিরীয়া তরিক্বতের অফিস এবং তরিক্বতপন্থীদের বাড়িঘর ও দোকানপাট ভাংচুর, লুটপাটসহ নারী ও শিশুদের উপর অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে। তাছাড়া নিরীহ মানুষের নামে মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে।

গত কয়েকদিনে এ রকম নারকীয় অত্যাচারের ফলে রাউজানের হাজার হাজার লোকজন ঘর-বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে, যাদের মধ্যে অনেকে সরকার দলীয় সমর্থক ও মুক্তিযোদ্ধা রয়েছেন। এরুপ পরিস্থিতিতে প্রবাসী রাউজানবাসীরাও তাদের পরিবারবর্গের জান-মালের নিরাপত্তা নিয়ে অত্যন্ত চিন্তিত।

অসংখ্য মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তানদের নিয়ে গড়া এ সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার জন্য একটি চক্র ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে, এ বিষয়ে রাউজানের প্রশাসন একেবারেই নির্লিপ্ত রয়েছে। এতে সরকারের ভাবমূর্তি ও সুনাম ক্ষুণ্ন হচ্ছে। এমতাবস্থায় রাউজানের নারকীয় এ তান্ডবলীলা বন্ধে প্রশাসনের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এমআরএম

আপনার মতামত লিখুন :