এখানেই ঘুমাবে ছোট্ট জায়ান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৩৫ পিএম, ২৪ এপ্রিল ২০১৯

বনানী করবস্থান প্রধান ফটক দিয়ে ঢুকে একটু বাম দিকে এগিয়ে যেতেই দেখা গেল একটি কবর খোঁড়ার কাজ চলছে। আশপাশ দিয়ে টাঙানো হয়েছে শামিয়ানা। ৩-৪ জন মিলে কবর খোঁড়ার কাজ করছেন। মাত্র আট বছর বয়সী ছোট্ট জায়ান চৌধুরী এখানেই চিরনিদ্রায় শায়িত হবে। শ্রীলঙ্কায় ভ্রমণে গিয়ে বোমা হামলায় নিথর হয়েছে তার দেহ। জায়ানকে হারিয়ে কাঁদছে তার মা-বাবা ও আত্মীয়স্বজনেরা।

আরও পড়ুন : জায়ানের খেলার মাঠেই তার জানাজার আয়োজন

মা-বাবার আদরের সন্তান জায়ান চৌধুরী। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নাতি সে। তার নিথর দেহ দেশে আসছে আজ দুপুরে। বনানী কবরস্থানে ছোট্ট জায়ানকে সমাহিত করা হবে। এ জন্য চলছে প্রস্তুতি।

আব্দুল মোতালেব ছোট্ট জায়ানের কবর খোঁড়ার কাজ করছিলেন। তিনি বলেন, ‘আমরা ৩-৪ জন মিলে জায়ানের কবর খোঁড়ার কাজ করছি। পুরোপুরি কাজ শেষ হতে আরও দুই ঘণ্টার মতো সময় লাগবে। এর আগে গত রাতেই কবরের আশপাশ দিয়ে শামিয়ানা টাঙানো হয়। আমরা এ বনানী কবর স্থানেই কাজ করি। প্রতিদিন কতই কবর খুঁড়ি। কিন্তু ছোট্ট এ শিশু সন্তানের জন্য কবর খুঁড়তে কেন জানি খুব কষ্ট লাগছে। আল্লাহ তার বান্দাকে নিয়ে গেছেন এখানে আমরা দোয়া করা ছাড়া আর কিছুই করতে পারব না।’

Jaian.jpg

আরও পড়ুন : ছোট্ট জায়ান ঘুমাবে বলে...

জায়ানের পরিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বুধবার বেলা ১টা ১০ মিনিটে শ্রীলঙ্কা থেকে বিমানযোগে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছবে তার মরদেহ। সেখান থেকে বনানীতে নানা শেখ সেলিমের বাসভবনে নিয়ে আসা হবে তাকে। বাদ আসর বনানীর চেয়ারম্যানবাড়ি মাঠে জানাজা হবে। এরপর দাফন করা হবে বনানী কবরস্থানে।

আরও পড়ুন : বাবা-মায়ের সঙ্গে দাদা বাড়ি আসা হলো না জায়ানের

শ্রীলঙ্কায় গত (২১ এপ্রিল) রোববার ইস্টার সানডে উদযাপনের সময় গির্জা ও হোটেলে ভয়াবহ বোমা হামলার ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ৩৫৯ জনের নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন আরও পাঁচ শতাধিক। এ ঘটনায় জায়ান চৌধুরী নিহত এবং তার বাবা মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স গুরুতর আহত হন।

এএস/এনডিএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :