ভিআইপি সংস্কৃতির অপব্যবহার বন্ধে সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রয়োজন

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৩৭ পিএম, ২৯ জুলাই ২০১৯

উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মকর্তাকে ‘ভিআইপি সুবিধা’ দেয়ার নামে ফেরিযাত্রা প্রায় তিন ঘণ্টা আটকে রাখায়, গুরুতর আহত এক স্কুল শিক্ষার্থীর মাঝ নদীতে অ্যাম্বুলেন্সে মৃত্যুর ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

সোমবার এক বিবৃতিতে টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান একথা বলেন।

অবিলম্বে নিহত তিতাস দাসের পরিবারকে ন্যায্য ক্ষতিপূরণ ও সংশ্লিষ্ট দায়ীদের জবাবদিহির আওতায় আনার জোর দাবি জানিয়েছে সংস্থাটি। পাশাপাশি ভিআইপি সুবিধার নামে জনগণের নিরাপত্তা ঝুঁকিসহ বহুবিধ হয়রানি বন্ধে এ ধরনের সুযোগ-সুবিধার সুনির্দিষ্ট সীমারেখা নির্ধারণের জন্য মন্ত্রিপরিষদ সচিবালয় ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে টিআইবি।

ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘জরুরি চিকিৎসার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সেবা নিশ্চিত করা রাষ্ট্রের মৌলিক দায়িত্ব। অথচ এ দায়িত্বের সম্পূর্ণ অবহেলা করে ভিআইপি সুবিধার নামে ক্ষমতার অপব্যবহারের কারণে যেভাবে তিতাসের অকাল মৃত্যু হলো তা কোনোভাবেই কাম্য নয়। তিতাসের পরিবারকে অনতিবিলম্বে ন্যায্য ক্ষতিপূরণ প্রদানের জোর দাবি জানাচ্ছি। একই সঙ্গে তথাকথিত ভিআইপি সংস্কৃতির এরূপ অপব্যবহার রোধে সুনির্দিষ্ট সরকারি আদেশের মাধ্যমে ভিআইপি সুবিধা আদায়ের নামে জনগণের সব প্রকার হয়রানি ও নিরাপত্তাহীনতা বন্ধ করার উপায় নিশ্চিতের জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও জনপ্রশাসনের কাছে বিশেষ আবেদন জানাচ্ছি।’

সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীল কর্মকর্তা, যারা জনগণের সেবক হিসেবে দায়িত্ব পালনে ব্রত, তাদের নিন্দনীয় ক্ষমতার অপব্যবহার ও গাফিলতির কারণেই এ ঘটনা সংঘটিত হতে পেরেছে উল্লেখ করে ড. জামান বলেন, প্রচলিত চর্চার দোহাই দিয়ে জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার জন্য ‘ভিআইপি’ প্রটোকলের ব্যবস্থা করতে হবে- এ যেন এখন অলিখিত নিয়মে পরিণত হয়েছে, তাতে সৃষ্ট জনদুর্ভোগের বিষয়ে যেন কারও কোনো দায় নেই।

ঘটনা সংঘটনের পর প্রচলিত চর্চার দোহাই দিয়ে এ অনাচারের দায় এড়ানোর প্রবণতাকে একই সাথে দুঃখজনক বলে অভিহিত করে ড. জামান বলেন, ‘সরকারের জন্য এ ধরনের ঘটনা অনাকাঙ্ক্ষিত ও বিব্রতকর। আমরা আশা করি, এ দুঃখজনক ঘটনায় জড়িত প্রত্যেককে জবাবদিহির আওতায় এনে এবং এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ দ্রুত গ্রহণ করে সরকার তা জনসাধারণকে অবহিত করবে।’

জেএইচ/এমএস