কেমন চলছে বিআরটিসির চক্রাকার এসি বাস সার্ভিস

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০২:৩৭ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০১৯

দুপুর সাড়ে ১২টা। আজিমপুর বাসস্ট্যান্ডে ধানমন্ডি-সায়েন্সল্যাব-নিউমার্কেট ও আজিমপুর রুটে চলাচলকারী সরকারি বিআরটিসি পরিচালিত অত্যাধুনিক চক্রাকার শীতাতপ (এসি) নিয়ন্ত্রিত একটি বাস যাত্রীর জন্য অপেক্ষমাণ। বেসরকারি অন্য বাসের কাউন্টারগুলোতে বেশ ভিড় থাকলেও বিআরটিসির এ কাউন্টার প্রায় ফাঁকা। ১০ মিনিট পরই বাসটি গন্তব্যে রওনা হবে। কিন্তু বাসের টিকিটের জন্য দু-এক মিনিট পরপর দু-চারজন আসছেন।

নির্দিষ্ট সময় শেষে ৫৫ আসনের বাসটি যখন ছেড়ে গেল তখন যাত্রী সংখ্যা ছিল ১৮ জন। গত মে মাসে যখন চক্রাকার এসি বাস সার্ভিসটি চালু হয়, তখন বাসে যত্রীদের উপচে পড়া ভিড় থাকলেও গত দুমাস ধরে কাঙ্ক্ষিত সংখ্যায় যাত্রী পাচ্ছে না বিআরটিসি।

আজ (রোববার) সকাল থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এ রুটে বিআরটিসি শ’ দুয়েকের কম যাত্রী পেয়েছে বলে জানালেন বাস কাউন্টারের টিকিট বিক্রেতা এক তরুণ। দৈনিক ৫০০ টাকা মজুরিতে বিবিএ ডিগ্রিধারী এ যুবক কাউন্টারে টিকিট বিক্রির চাকরি করছেন।

BRTC

ওই যুবক বললেন, ‘উদ্বোধনের পরপর এসি বাস সার্ভিসের জন্য যে সংখ্যক যাত্রী বলতে গেলে পাগল ছিল, তা বর্তমানে অর্ধেকে নেমে এসেছে। তবে মাঝে মাঝে আবার ৫৫ আসন পূর্ণ হয়ে যায়। যাত্রীদের চাহিদার কারণে অনেক সময় দাঁড়িয়েও যেতে হয়।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেল, বর্তমানে ধানমন্ডি-সায়েন্সল্যব-নিউমার্কেট ও আজিমপুর রুটে মোট ১৩টি এসি বাস চলাচল করছে। বাসগুলো আজিমপুর-নিউমার্কেট-সায়েন্সল্যাব-ধানমন্ডি ২ নম্বর রোড-সাত মসজিদ রোড-ধানমন্ডি ২৭ নম্বর রোড-সোবহানবাগ-রাসেল স্কয়ার-কলাবাগান-৬ নম্বর রোড মোড়-৩ নম্বর রোড –সায়েন্সল্যাব-নিউমার্কেট-আজিমপুর-পলাশী-নীলক্ষেত-কাঁটাবন-বাটা ক্রসিং-সায়েন্সল্যাব-২ নম্বর রোড -সাত মসজিদ রোড।

BRTC

সোবহানবাগ-রাসেল স্কয়ার-কলাবাগান-৬ নম্বর রোড ক্রসিং-৩ নম্বর রোড ক্রসিং- সায়েন্সল্যাব-বাটাক্রসিং-কাঁটাবন-নীলক্ষেত-পলাশী-আজিমপুর-নিউমার্কেট-সায়েন্সল্যাব-৩ নম্বর রোড-৬ নম্বর রোড ক্রসিং-কলাবাগান-সোবহানবাগ-২৭ নম্বর রোড পূর্ব মাথা-২৭ নম্বর রোড পশ্চিম মাথা-সাত মসজিদ রোড –বিজিবি-২ নম্বর রোড-৩ নম্বর রোড ইউটার্ন-সায়েন্সল্যাব-বাটা ক্রসিং-কাঁটাবন-নীলক্ষেত-পলাশী-আজিমপুর-নিউমার্কেট পর্যন্ত চলাচল করে বাসগুলো। এসব বাসের সর্বনিম্ন ভাড়া ২০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ৩০ টাকা।

বিভিন্ন স্টপেজ যেমন, কাঁটাবন-নীলক্ষেত সড়কে এলইডি সাইনের সামনে-বিপরীতে, মিরপুর রোডের নিউমার্কেট-সায়েন্সল্যাব রুটে নিউমার্কেট বাস-বে এবং সায়েন্সল্যাব-নিউমার্কেট রুটে বলাকা সিনেমা হলের সামনে, মিরপুর রোডের ঢাকা কলেজ-সায়েন্সল্যাব রুটে টিচার্স ট্রেনিং কলেজ এবং সায়েন্সল্যাব-ঢাকা কলেজ রুটে জনতা ব্যাংক, ধানমন্ডি ২ নম্বর রোডে পপুলারের পশ্চিমে এবং সিটি কলেজের পশ্চিমে, সাত মসজিদ রোডে (বিজিবি গেটের পাশে) ব্যাংক এশিয়ার সামনে, সীমান্ত ব্যাংক যাত্রী ছাউনি, সাত মসজিদ রোডে ইউল্যাবের সামনে, মেডিনোভার সামনে, শংকর বাসস্ট্যান্ড, কবি নজরুল ইনস্টিটিউট ইন্টারসেকশন (জেনেটিক প্লাজার সামনে ও বিপরীতে), কলাবাগান মাঠের বিপরীতে, পাশে পলাশী মোড় ও আজিমপুর মোড় থেকে যাত্রী উঠানাম করে।

BRTC-3

আজ এ প্রতিবেদক সরেজমিন ঘণ্টাখানেক দাঁড়িয়ে অন্যান্য বেসরকারি বাসের তুলনায় এসি বাসে কম লোকজনকে উঠতে দেখেন। বিআরটিসির একজন ড্রাইভার জানান, স্কুল ও কলেজ খোলা থাকলে যাত্রী সংখ্যা বেশি হয়। তবে ইদানীং যাত্রী সংখ্যা কমে গেছে বলে তিনি জানান।

জানা গেছে, মোহাম্মদপুর থেকে কমলাপুর রুটে ৬টি চক্রাকার বাস সার্ভিস বন্ধ হয়ে গেছে। এ রুটে যানজটের কারণে এসি বাস চালিয়ে লোকসান গুনতে হচ্ছে বিধায় তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

আজিমপুর বাসস্ট্যান্ডে এসি বাস সার্ভিসের একজন যাত্রী বললেন, বিআরটিসির এসি বাস সার্ভিসের মান এখনও ভালো। তবে ইদানীং অহেতুক বিভিন্ন স্টপেজে যাত্রীর জন্য অপেক্ষা ও অতিরিক্ত যাত্রী উঠানোর ফলে যাত্রীদের মধ্যে অনীহার সৃষ্টি হচ্ছে। তারপরও এখনও এ বাস সার্ভিসটি আরামদায়ক ও উন্নতমানের বলে ওই যাত্রী মন্তব্য করেন।

এমইউ/এসআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]