চীনের ভাইরাস ঠেকাতে চট্টগ্রামেও রেড অ্যালার্ট

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:২৫ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০২০

চীনের রহস্যজনক ভাইরাস প্রতিরোধে রেড অ্যালার্ট জারি করেছে চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। বিদেশ থেকে আসা যাত্রীদের স্ক্যানিং করতে প্রস্তুত রাখা হয়েছে মেডিকেল টিম।

বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বলছে, ভাইরাস খুবই দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এ জন্য সতর্কতামূলক বিভিন্ন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

চট্টগ্রামের সাবেক সিভিল সার্জন ও স্বাচিপ নেতা ডা. শেখ শফিউল আজম বলেন, বিমানবন্দরে স্থাপিত হেলথ ডেস্কে কর্মীদের পাঠানো হচ্ছে। যেসব ফ্লাইট চীন থেকে আসছে সেসব ফ্লাইটের যাত্রীদের স্ক্যানিং করা হচ্ছে।

এদিকে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষও এ বিষয়ে বিশেষ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। ভাইরাসটি যেন বাংলাদেশে ছড়িয়ে পড়তে না পারে, সে জন্য চীন থেকে আসা সরাসরি তিনটি ফ্লাইটের যাত্রীদের নজরে রাখা হবে।

china2

ফ্লাইট তিনটি হলো- ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স, চায়না ইস্টার্ন ও চায়না সাউদার্ন এয়ারলাইন্স। এ এয়ারলাইন্সের ছয়টি ফ্লাইট প্রতিদিন আসা যাওয়া করে।

রহস্যজনক এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চীনে এখন পর্যন্ত চারজনের মৃত্যু হয়েছে। কর্তৃপক্ষ বলছে, একজন থেকে অন্যজনের শরীরে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে। এই ভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে এক চিকিৎসা কর্মীও রয়েছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

চীন ছাড়াও জাপান, থাইল্যান্ড এবং দক্ষিণ কোরিয়ায় এই ভাইরাসে আক্রান্তের খবর পাওয়া গেছে। গত ডিসেম্বরে কেন্দ্রীয় চীনের উহান শহরে এই ভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সামুদ্রিক খাবার বিক্রির একটি বাজার থেকে এই রোগ ছড়িয়ে পড়েছে।

চীনের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র জানিয়েছে, এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শরীরে প্রথমেই যে লক্ষণগুলো পাওয়া গেছে সেগুলো হলো- শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশি। এ থেকে প্রথমেই মনে হতে পারে যে রোগী নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। অনেকটা নিউমোনিয়ার মতোই এই ভাইরাসটি এক ধরনের করোনা ভাইরাস।

বিএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]