খুচরা ফুল বিক্রির আশায় বিক্রেতারা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৪৭ পিএম, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে হাজারও মানুষ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন ভাষা শহীদদের। স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে শহীদদের ফুলের মালা-তোড়া দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সর্বস্তরের মানুষ।

স্বাভাবিকভাবেই রাজধানীসহ সারা দেশে ফুলের চাহিদা বেড়েছে। তবে মূল বিক্রি গতকাল বৃহস্পতিবারই (২০ ফেব্রুয়ারি) হয়েছে। শুক্রবার খুচরা বিক্রির আশায় বিক্রেতারা।

রাজধানীর শাহবাগের বিক্রেতারা বলছেন, গতরাত থেকে ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাচ্ছে সর্বস্তরের মানুষ। শুক্রবার সকাল পর্যন্ত শ্রদ্ধা ফুল দিয়ে জানিয়েছে। এখন থেকে সবাই ঘুরবে। তাই একুশে ফেব্রুয়ারির ফুল বিক্রির মূল সময় চলে গেছে। বই মেলায় মানুষের ভিড় বাড়ছে। এখন খুচরা ফুল বিক্রি বাড়তে পারে।

jagonews24

ক্রেতারা বলছেন, আজ ফুলের দাম অনেকটাই স্বাভাবিক রয়েছে। মো. বিল্লাল নামের এক ক্রেতা বলেন, ‘বিয়ে উপলক্ষে সাতশ টাকার ফুল কিনছি। একুশে ফেব্রুয়ারি হলেও ফুলের দাম স্বাভাবিকই আছে।’

তবে খুচরা ফুল কিছুটা চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে। শাহবাগ, টিএসসি ও বইমেলার পার্শ্ববর্তী এলাকা ঘুরে দেখা যায়, মাথায় পরার জন্য ফুলের রিং বানিয়ে বিক্রি করছে শিশুরা। ৪০ থেকে ৫০ টাকায় তারা প্রতিটি রিং বিক্রি করছে। তবে কখনও কখনও ১০০ টাকায়ও সেগুলো বিক্রি করছে তারা।

ফুলের রিংয়ের এক শিশু বিক্রেতা বলে, যার কাছ থেকে যেমন রাখতে পারছে, তেমনি বিক্রি করছে তারা।

jagonews24

এদিকে একুশে ফেব্রুয়ারির সঙ্গে মিল রেখে অনেকে কালো, সাদা রঙের কাপড় পরে এসেছে। আর শিশু ও তরুণীদের মাঝে মাথায় ফুলের রিং পরার হার বেশি লক্ষ্য করা গেছে।

ফুল বিক্রি নিয়ে বিক্রেতারা ভিন্ন ভিন্ন মত দিচ্ছেন। তাদের কেউ বলছেন বিক্রিতে মন্দা, কেউ বলছেন মোটামুটি ভালো।

শাহবাগের ভাই ভাই ফ্লাওয়ার দোকানের মো. আরিফ বলেন, ‘একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে যে পরিমাণ ফুল বিক্রি হওয়ার কথা ছিল, তা হয়নি। কয়েক দিন আগে পহেলা ফাল্গুন ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবস গেছে। সে সময় মোটামুটি ভালো বিক্রি হয়েছে। আসলে একটা আকর্ষণের পরে আরেকটা আকর্ষণ আসলে মানুষের চাহিদা কম থাকে। এ কারণে চাহিদা কিছুটা কমেছে আজ।’

jagonews24

আরিফ আরও বলেন, ‘একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে বইমেলায় অনেক মানুষ আসছে। আশা করছি, বিকেল নাগাদ ভিড় বাড়বে। তখন খুচরা ফুলের বিক্রি ভালো হতে পারে। বিশেষ করে ফুলের মাথার রিং বিক্রি হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।’

ফুলতলা দোকানের মো. জাহাঙ্গীর বলেন, ‘গত ১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ফুল বিক্রি শুরু হয়েছে। ২০ ফেব্রুয়ারি বিক্রি ভালো হয়েছে। আজকে বিক্রি ভালো হবে না। কারণ আজকে সবাই ঘুরবে। ফুলের দাম মোটামুটি ভালো। তবে খুব বেশিও না।’

পিডি/এমএসএইচ/এমকেএইচ