তিনি বিসিএস ক্যাডার, কখনও ম্যাজিস্ট্রেট, কখনও উপ-সচিব

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৪৫ পিএম, ০১ জুন ২০২০

রাজধানীর উত্তরায় অভিযান চালিয়ে ভুয়া উপ-সচিব পরিচয় প্রদানকারী এক প্রতারককে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। রোববার মধ্যরাতে সিআইডির সিরিয়াস ক্রাইম স্কোয়াডের একটি বিশেষ দল তাকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতারকৃত প্রতারকের নাম মো. গোলাম মোস্তফা (৩৮)। তিনি নিজেকে ২৪তম বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের একজন কর্মকর্তা, ম্যাজিস্ট্রেট আবার কখনও সচিবালয়ে কর্মরত বলে পরিচয় দিতেন।

সিআইডির অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার মো. ফারুক হোসেন জানান, প্রতারক গোলাম মোস্তফা বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে পাঁচজনের কাছ থেকে প্রায় ৭৫ লাখ টাকা প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নিয়েছেন।

তিনি বলেন, তদন্তে জানা যায়- গ্রেফতারকৃত প্রতারক নিজেকে কখনও ম্যাজিস্ট্রেট, আবার কখনও উপ-সচিব অথবা সচিবালয়ের পদস্থ কর্মকর্তা হিসেবে পরিচয় দিয়ে প্রতারণা করতেন। তার মূল টার্গেট ছিল বিত্তবান পরিবারের অবিবাহিত ও চাকরিজীবী মেয়ে।

মামলার তদন্তে সিআইডি আরও জানতে পারে, ঢাকা শহরের কিছু অসাধু ঘটকের কাছ থেকে অবিবাহিত মেয়েদের বায়োডাটা টাকার বিনিময়ে সংগ্রহ করে তাদের সাথে ফোনে যোগাযোগ শুরু করে। তাদের পরিবারের সদস্য বিশেষত পাত্রীর মায়ের সাথে সখ্যতা গড়ে তোলে এবং বিশ্বস্ততা অর্জন করে। এরপর বিভিন্ন সময়ে নানা অজুহাত যেমন- পিএইচডি করতে বিদেশ যাওয়া, দুদককে ঘুষ দেয়া, বদলি বাতিলকরণ করাসহ নানা অজুহাতে বিবাহপ্রার্থীদের কাছ থেকে টাকা ধার নিতেন। পরবর্তীতে ধারকৃত টাকা ফেরত না দিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিতেন।

গত ১১ ফেব্রুয়ারি প্রতারণার শিকার হয়ে বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত এক নারী বাদী হয়ে ঢাকার ক্যান্টনমেন্ট থানায় প্রতারক গোলাম মোস্তফার নামে একটি প্রতারণার মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তের দায়ভার নেয় সিআইডি। পরে দীর্ঘ তদন্তের পর সিরিয়াস ক্রাইম স্কোয়াডের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাজীব ফরহানের তত্ত্বাবধানে সহকারী পুলিশ সুপার মো. সুমন রেজার নেতৃত্বে একটি দল উত্তরা ১১ নম্বর সেক্টরের একটি অ্যাপার্টমেন্ট থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

এআর/বিএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]