বিএসএমএমইউতে প্রথম টিকা নেবেন উপাচার্য কনক কান্তি

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৫:৪২ পিএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২১

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) প্রথম করোনা টিকা নেবেন উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া। এর মধ্য দিয়ে বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রোজেনেকার টিকাদান কর্মসূচির সূচনা হবে। সকাল ৯টায় বিএসএমএমইউ কনভেনশন সেন্টারে এই টিকা কর্মসূচির উদ্বোধন করা হবে।

ওই দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. মো. জুলফিকার আহমেদ আমিনসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা টিকা গ্রহণ করবেন। এছাড়া স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার টিকা গ্রহণের সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রথম দিন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, শিক্ষক, চিকিৎসক, রেসিডেন্ট শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী, আনসার বাহিনীর সদস্যদের মধ্য থেকে ২০০ জনকে করোনার টিকা দেয়া হবে। করোনার টিকাদান কর্মসূচি বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে বিএসএমএমইউ কনভেনশন সেন্টারের তথ্যকেন্দ্র, ওয়েটিং রুম, ৮টি বুথ, পোস্ট কোভিড অপেক্ষাগার, আট শয্যার সিকবে, ক্রিটিক্যাল কেয়ার মেডিসিন ও ইন্টারনাল মেডিসিন বিশেষজ্ঞসহ বিভিন্ন বিষয়ের বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে দুটি চিকিৎসক টিম, চারটি এইচডিইউ, কেবিন ব্লকে চারটি শয্যা, দুটি অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

এছাড়া বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় বিএসএমএমইউ’র এ-ব্লকের ২য় তলা অডিটোরিয়ামে ‘কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন : আশার আলো ও প্রাসঙ্গিক কথা’ শীর্ষক একটি বৈজ্ঞানিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ইউনিভার্সিটি সেন্ট্রাল সেমিনার সাব-কমিটির’ উদ্যোগে উক্ত সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. সাহানা আখতার রহমান, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. জাহিদ হোসেন, কোষাধ্যক্ষ ও বক্ষব্যাধি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান।

ফার্মাকোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান ও সংশ্লিষ্ট কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মো. সায়েদুর রহমানের সভাপতিত্বে সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন ইন্টারনাল মেডিসিনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সোহেল মাহমুদ আরাফাত। প্যানেল এক্সপার্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ডিন ও ন্যাশনাল টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজার কমিটির সদস্য অধ্যাপক ডা. এম ইকবাল আর্সলান, নিউনেটলজি বিভাগের চেয়ারম্যান ও কোভিড-১৯ ন্যাশনাল টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজার কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লা, প্রিভেনটিভ অফ সোস্যাল মেডিসিন অনুষদের ডিন ও পাবলিক হেলথ অ্যান্ড ইনফরমেটিকস বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক সৈয়দ শরিফুল ইসলাম, ভাইরোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সাইফ উল্লাহ মুন্সী, পপুলার মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের অধ্যাপক ও কোভিড-১৯ ন্যাশনাল টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজার কমিটির মেম্বার অধ্যাপক ডা. কাজী তারিকুল ইসলাম, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেসপিরেটরি মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. একেএম মোশারফ হোসেন। সেমিনারে মডারেটরের দায়িত্ব পালন করবেন গ্যাস্ট্রোএন্টারোলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. চঞ্চল কুমার ঘোষ।

এছাড়াও সকাল ১০টায় সি-ব্লকে কিডনি বিভাগের অধ্যাপক ডা. মো. নজরুল ইসলামের লিখিত বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করবেন প্রধান অতিথি উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া।

এমইউ/ইএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]