গভীর রাতে পাহাড়ে বিকল পর্যটকবাহী গাড়ি, ৯৯৯-এ ফোনে উদ্ধার

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৩১ পিএম, ০৪ মার্চ ২০২১

পার্বত্য বান্দরবান থেকে গভীর রাতে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে বিকল বাসের এক যাত্রীর কল পেয়ে তাদের রাতব্যাপী নিরাপত্তা দিয়ে বাস মেরামতের ব্যবস্থা করে দিয়েছে বান্দরবান সদর থানাধীন দুলুপাড়া চেকপোস্ট ক্যাম্পের পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) রাত দেড়টায় মশিউর রহমান নামে এক পর্যটক বান্দরবান থেকে ৯৯৯-এ কল করে জানান, তিনি পেশায় একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। এক নারী ও শিশুসহ ৪০ জন পর্যটক যশোর থেকে রিজার্ভ বাসযোগে বান্দরবান বেড়াতে এসেছিলেন।

‘বান্দরবান সদর থেকে ১০-১২ কি.মি. দূরত্বে বান্দরবান রাঙ্গামাটি সংযোগ সড়কের একটি স্থানে তাদের বাসটি বিকল হয়ে গেছে প্রায় ঘণ্টাখানেক আগে। বাসের ড্রাইভার এবং হেল্পার অনেক চেষ্টা করেও সচল করতে পারেননি।’

তিনি ভয়ার্ত কণ্ঠে জানান, সাত-আট জন উপজাতি লোক কাছে এসে তাদের অবস্থা দেখে গেছে। এখন কিছুটা দূরে দাঁড়িয়ে নিজেদের মধ্যে কথা বলাবলি করছে। গভীর রাতে নির্জন পাহাড়ি এলাকায় তারা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। কোনো উপায় না পেয়ে তিনি ৯৯৯-এ ফোন করেন। এ অবস্থা থেকে তাদের উদ্ধারের ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানান।

৯৯৯ তাৎক্ষণিকভাবে কলারের সঙ্গে বান্দরবান সদর থানার ডিউটি অফিসারের কথা বলিয়ে দেয়। ৯৯৯ থেকে সংবাদ পেয়ে দুলুপাড়া চেকপোস্ট থেকে একটি পুলিশ দল ঘটনাস্থলে যায়।

পরে দুলুপাড়া চেকপোস্টের এএসআই অংকোলা মার্মা ৯৯৯ কে ফোনে জানান, তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে বিকল বাসের পর্যটকদের ঘটনাস্থলের কাছে একটি মসজিদে নিয়ে যান এবং তাদের নিরাপত্তা দেন।

পরে সকাল হলে বাসের ড্রাইভার ও হেলপারকে বাসের বিকল যন্ত্রাংশ খুলে নিয়ে সদরে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। যন্ত্রাংশ মেরামত করে নিয়ে আসার পর বাসটি সচল হলে পর্যটকদের নিয়ে বান্দরবান সদরে ফিরে গেছে।

৪ মার্চ সকালে ৯৯৯ থেকে কলার পর্যটককে ফোন করা হলে তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করেন এবং ৯৯৯ এর প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

এমআরএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]