হোটেল শ্রমিকদের বেতন-বোনাস পরিশোধের দাবিতে বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:২৭ পিএম, ১১ মে ২০২১

হোটেল শ্রমিকদের বকেয়া বেতন ও বোনাস পরিশোধ না করায় এবং সরকার ও মালিকপক্ষের দায়িত্বহীন ভূমিকার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১১ মে) বাংলাদেশ হোটেল রেস্টুরেন্ট সুইটমিট শ্রমিক ফেডারেশনের উদ্যোগে দেশব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ঈদ অতি আসন্ন হলেও ৩০ লাখ হোটেল শ্রমিকের বকেয়া বেতন-বোনাস এখন পর্যন্ত মালিকরা পরিশোধ না করায় শ্রমিকরা চরম দুঃখ-কষ্টে দিনাতিপাত করছেন। এ অবস্থায় তাদের পরিবার-পরিজনের ঈদ উদযাপন অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে।

তারা বলেন, সরকারের মালিকতোষণ নীতির কারণে মালিকরা শ্রমিকদের বেতন-বোনাস না দিয়ে পার পেয়ে যাচ্ছেন। মালিকরা ধারাবাহিকভাবে হোটেল সেক্টরের শ্রমিকদের ঈদের সময় মজুরি ও উৎসব ভাতা না দিয়ে নিজেদের সম্পদের পাহাড় বৃদ্ধি করে চলছেন।

‘এবার এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আইন অনুযায়ী ঈদের ছুটি না দেয়া। গতকাল সোমবার (১৯ মে) টঙ্গিতে একটি কারখানায় ঈদের ছুটির দাবিতে আন্দোলনরত শ্রমিকদের ওপর গুলিবর্ষণ সরকারের মালিকতোষণ নীতি ও চরম স্বৈরতান্ত্রিক আচরণের বহিঃপ্রকাশ।’ শ্রমিকদের ওপর গুলিবর্ষণের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান বক্তারা।

বক্তারা আরও বলেন, গত বছর বৈশ্বিক মহামারি করোনার সময় থেকে প্রণোদনাসহ বিভিন্ন দাবিতে সংশ্লিষ্ট দফতরসহ প্রধানমন্ত্রী বরাবর ধারাবাহিকভাবে চিঠি/স্মারকলিপি প্রদান করে আসছি। পুনরায় একই দাবিতে গত ৪ এপ্রিল শ্রম প্রতিমন্ত্রী ও ১৩ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। কিন্তু আজ পর্যন্ত কোনো প্রকার কার্যকর ভূমিকা পরিলক্ষিত হচ্ছে না।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে হোটেল শ্রমিকদের বকেয়া বেতন ও বোনাস প্রদানে কার্যকরী উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানান। অন্যথায় এই শিল্পে কোনো অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি হলে তার দায় সরকার ও মালিকগোষ্ঠীকে নিতে হবে বলে হুঁশিয়ার করেন তারা।

বাংলাদেশ হোটেল রেস্টুরেন্ট সুইটমিট শ্রমিক ফেডারেশনের সহ-সভাপতি ও বাংলাদেশ হোটেল রেস্টুরেন্ট মিষ্টি বেকারি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আক্তারুজ্জামান খানের সভাপতিত্বে ও বাংলাদেশ হোটেল রেস্টুরেন্ট সুইটমিট শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেনের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের সহ-সভাপতি শ্যামল কুমার ভৌমিক, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের সহ-সভাপতি খলিলুর রহমান, বাংলাদেশ ওএসকে গার্মেন্টস অ্যান্ড টেক্সটাইল শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ দত্ত, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আতিকুল ইসলাম টিটু, বাংলাদেশ হোটেল রেস্টুরেন্ট সুইটমিট শ্রমিক ফেডারেশনের যুগ্ম সম্পাদক জয়নাল আবদীন।

এফএইচ/ইএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]