কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন রুট

৬ অক্টোবর চালু হচ্ছে ‘এমভি কর্ণফুলী’, ৩ নভেম্বর ‘বে ওয়ান’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:২৮ পিএম, ০৪ অক্টোবর ২০২২
এমভি কর্ণফুলী এক্সপ্রেস/ছবি: সংগৃহীত

মিয়ানমার সীমান্তে গোলাগুলি ও নাফ নদীর বিভিন্ন স্থানে ডুবোচর দেখা দেওয়ায় সম্প্রতি সাগরপথে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন জাহাজ চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়।

তবে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার থেকে জাহাজে সাগরপথে সেন্টমার্টিন যেতে পারবেন পর্যটকরা। এখন এ নতুন রুটে পর্যটক পরিবহনে এগিয়ে আসছে বিভিন্ন বিলাসবহুল ক্রুজশিপ। যেখানে সাগর পথে সরাসরি কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন ভ্রমণ আরও আনন্দময় করে তুলবে।

এমন সুযোগ-সুবিধা নিয়ে বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) থেকে কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন রুটে সরাসরি পর্যটক পরিবহন শুরু করবে ‘এমভি কর্ণফুলী এক্সপ্রেস’। আগামী ৩ নভেম্বর চট্টগ্রাম-সেন্টমার্টিনের মধ্যে চলাচল করবে বিলাসবহুল ক্রুজশিপ ‘এমভি বে ওয়ান’। এছাড়া শিগগির এ বহরে যুক্ত হবে ‘বারো আওলিয়া’ নামে নতুন আরেকটি ক্রুজশিপ।

মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) কর্ণফুলী শিপবিল্ডার্স লিমিটেড এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানায়।

এতে বলা হয়, এমভি কর্ণফুলী এক্সপ্রেস সকালে কক্সবাজার এয়ারপোর্ট সড়কের বিআইডব্লিউটিএ ঘাট থেকে যাত্রা শুরু করে দুপুরে সেন্টমার্টিন পৌঁছাবে। একইদিন বিকেলে সেন্টমার্টিন থেকে ফিরতি পথ ধরে রাতে কক্সবাজার পৌঁছাবে। এ জাহাজে ১৭টি ভিআইপি কেবিন ও তিন ক্যাটাগরির প্রায় ৬০০ আসন এবং আধুনিক বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। জাহাজটি দৈর্ঘ্যে প্রায় ৫৫ মিটার এবং প্রস্থ ১১ মিটার।

এ জাহাজে যাতায়াতে সাগর ও প্রবালদ্বীপকে দেখার জন্য তৈরি করা হয়েছে এমভি সেন্টমার্টিন ক্রুজ নামে একটি বার্জ। বড় হলরুম সদৃশ এ বার্জে বসে সেন্টমার্টিন আইল্যান্ড, ছেড়াদ্বীপ ও ঘোড়াদ্বীপ এবং নয়নাভিরাম সূর্যাস্ত দেখানোর ব্যবস্থা রয়েছে। জাহাজটিতে রাউন্ড ট্রিপে সর্বনিম্ন ভাড়া তিন হাজার ২০০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ২৮ হাজার টাকা। শ্রেণিভেদে রয়েছে ভাড়ার ভিন্নতা।

নৌযানটিতে তিন ক্যাটাগরির প্রায় ৬০০ আসন রয়েছে। এরমধ্যে আছে সিভিউ এসি সোফা সিটিং-ক্রিসেন্ট টিমাম, ভিআইপি ও ভিভিআইপি কেবিন, সাইট ভিউ এসি কেবিন, রুফটপ, কনফারেন্স রুম, ডাইনিং স্পেস ও প্রশস্ত ব্যালকনিসহ আধুনিক বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা।

এমভি কর্ণফুলীর ভাড়া
ল্যাভেন্ডার ও ম্যারিগোল্ড নামক ইকোনমি চেয়ার সিটের (রাউন্ড ট্রিপ) ভাড়া তিন হাজার ২০০ টাকা, ওয়ান ওয়ে এক হাজার ৭০০ টাকা। গ্ল্যাডিয়াক ওপেন ডেক ও লিলাক লাউঞ্জ নামক বিজনেস ক্লাস (রাউন্ড ট্রিপ) চার হাজার টাকা, ওয়ান ওয়ে দুই হাজার ১০০ টাকা।

ক্রিসেন্ট টিমাম (রাউন্ড ট্রিপ) চার হাজার ৫০০ টাকা, ওয়ান ওয়ে দুই হাজার ৩০০ টাকা, সিঙ্গেল কেবিন (রাউন্ড ট্রিপ) সাত হাজার ৫০০ টাকা, ওয়ান ওয়ে চার হাজার টাকা।

টুইন কেবিন (রাউন্ড ট্রিপ) ১২ হাজার টাকা, ওয়ান ওয়ে ছয় হাজার ৫০০টাকা, ভিআইপি (রাউন্ড ট্রিপ) ২০ হাজার টাকা, ওয়ান ওয়ে ১১ হাজার ৫০০ টাকা, ভিভিআইপি (রাউন্ড ট্রিপ) ২৮ হাজার টাকা, ওয়ান ওয়ে ১৫ হাজার টাকা।

ভাড়াসহ অন্যান্য বিষয়ে বিস্তারিত জানতে কল করা যাবে ০৯৬১-০৮৪৯৯৭০, ০১৮৭০-৭৩২৫৯৮ নম্বরে। এছাড়া ওয়েবসাইটে ঢুকে এবং কর্ণফুলী শিপবিল্ডার্সের ফেসবুকে পেজে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে।

কর্ণফুলী শিপবিল্ডার্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার এম এ রশিদ জানান, এমভি কর্ণফুলী এক্সপ্রেসকে নিজস্ব ডকইয়ার্ডে একটি অত্যাধুনিক বিলাসবহুল জাহাজ হিসেবে প্রস্তুত করা হয়েছে। জাহাজটি ঘণ্টায় প্রায় ১২ নটিক্যাল মাইল গতিতে ছুটতে পারে।

তিনি জানান, এ মৌসুমে এমভি বারো আওলিয়া নামক একই কোম্পানির আরও একটি ক্রুজশিপ কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন রুটে যুক্ত হতে যাচ্ছে। এছাড়া গত দুই বছর ধরে চট্টগ্রাম ও সেন্টমার্টিন রুটে চলছে কর্ণফুলী শিপবিল্ডার্সের পাঁচতারকা মানের সাততলা আরেকটি বিলাসবহুল জাহাজ এমভি বে ওয়ান। এটি আগামী ৩ নভেম্বর চট্টগ্রাম-সেন্টমার্টিন রুটে যাত্রী পরিবহন শুরু হবে।

এমএমএ/এএএইচ/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।