শেরপুর জেলা উন্নয়নে ৮ দফা দাবি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৫৬ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০২২

শেরপুরের উন্নয়নে সরকারের কাছে ৮ দফা দাবি জানিয়েছে শেরপুর জেলা উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের নেতারা। তারা বলছেন, সারাদেশে উন্নয়ন হলেও শেরপুরে তেমন কোনো উন্নয়ন হয়নি। এখানে যাতায়াত ব্যবস্থা ভালো না। রেল যোগাযোগ নেই। শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক নাগরিক সমাবেশ করে সংগঠনটি।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ঢাকা থেকে শেরপুরের দূরত্ব ১৮৫ কিলোমিটার, যেতে সময় লাগে ৮-১০ ঘণ্টা, ভাড়া লাগে ৫০০ টাকা সর্বনিম্ন। অথচ যদি রেল যোগাযোগ থাকতো তাহলে খরচ হতো সর্বনিম্ন ১০০ টাকা। আমরা শেরপুরবাসী সরকারের কাছে আর্থিক সহায়তা চাই না, দারিদ্রমুক্তিও চাই না। আমরা চাই অন্যান্য জেলার মতো বিশ্ববিদ্যালয়, রেলপথ, শিল্প উন্নয়ন পার্ক, স্থলবন্দর উন্নয়ন, মেডিকেল কলেজ এবং শেরপুর জেলাকে পর্যটন নগরী হিসেবে ঘোষণা করা হোক।

৮ দফা দাবিগুলো হলো

১. ঢাকা থেকে শেরপুর যাতায়াতের জন্য ময়মনসিংহ হয়ে শেরপুরের নকলা উপজেলার মধ্য দিয়ে শেরপুর সদর পর্যন্ত রেল সড়ক নির্মাণ।

২. আধুনিক উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থার পাশাপাশি মেডিকেল কলেজ স্থাপন।

৩. কৃষি, প্রযুক্তি, প্রকৌশল ও সাধারণ শিক্ষা ব্যবস্থার সমন্বয়ে একটি আধুনিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন।

৪. শেরপুর পৌরসভার পাশাপাশি নগর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ নামে আলাদা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করা।
একই সঙ্গে পর্যাপ্ত বরাদ্দ দিয়ে আধুনিক শহর করা।

৫. কৃষি উন্নয়নে প্রযুক্তির ব্যবহার ও সীমান্ত রক্ষায় প্রযুক্তির উন্নয়নে একটি আইটি পার্ক করা।

৬. নাকোগাঁও স্থলবন্দরকে আধুনিক উন্নত স্থলবন্দরে রূপান্তর করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক।

৭. শ্রীবরদী, নালিতাবাড়ী ও ঝিনাইগাতী উপজেলাকে পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তোলা।

৮. শেরপুর জেলায় দুর্নীতিবাজ রাজনীতিবিদ, সরকারি বেসরকারি কর্মকর্তা ও অসৎ ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া।

নাগরিক সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে শেরপুর জেলা উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের প্রধান সমন্বয়কারী মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, এই আন্দোলন কোনো রাজনৈতিক বা ব্যক্তিগোষ্ঠির বিরুদ্ধে নয়। উক্ত ৮ দফা শেরপুর জেলার সব মানুষের প্রাণের দাবি। বর্তমান সরকার সারাদেশে উন্নয়ন করলেও শেরপুরে তেমন কোনো উন্নয়ন হয়নি, যা আমাদের দাবির মধ্যেই পরিষ্কার বুঝা যায়।

তিনি আরও বলেন, আমরা সরকারের কাছে দাবি করবো অন্যান্য জেলার ন্যায় আমাদের জেলাকে উন্নত জেলা হিসেবে তৈরি করতে ৮ দফা বাস্তবায়ন করবে।

নাগরিক সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, শেরপুর জেলা উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের যুগ্ম সমন্বয়কারী হাফিজুল করিম রুবেল, সুমন আহমেদ, অ্যাড. মো. মোস্তফা কামাল বাদল, আবুল কাসেম মজুমদার, অধ্যাপক মাসুদুর রহমান বাদল, সুমন আহমেদ, ফরহাদ সরকার, আনোয়ার হোসেন, মো. সুমন মোল্লা, মেজবাউর রহমান সোহেল, নজরুল ইসলাম, মো. রোকন, মোতালেব মিরাজ, সোহেল রানা, মো. জসিম শেখ, মাহমুদুল হাসান, নুর আলম মণ্ডল, খান শফিক, তনু হাফিজ প্রমুখ।

এইচএস/জেডএইচ/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।